মহাদেবপুরে পঙ্গু মুক্তিযোদ্ধার রাস্তায় প্রাচীর তুলে অবরুদ্ধ করলো প্রভাবশালীরা

প্রকাশিত: এপ্রিল ২৪, ২০২১; সময়: ৯:১৬ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, মহাদেবপুর : নওগাঁর মহাদেবপুরে পঙ্গু বীর মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের চলাচলের রাস্তায় প্রাচীর তুলে অবরুদ্ধ করে রেখেছে একটি প্রভাবশালী মহল। শুক্রবার উপজেলা সদরের কলাবাগান এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে।

ঘটনার খবর পেয়ে শনিবার সকালে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায়, মুক্তিযোদ্ধা মো. জাফর আলী উত্তরোরাধীকার সূত্রে তার শাশুড়ির অংশের পৌনে ৪ শতক জমি পান। সেখানে বসতবাড়ি নির্মাণ করে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছেন। তিনি প্যারালাইজড হয়ে দীর্ঘ ৬ বছর ধরে অসুস্থ হয়ে পড়ে আছেন। তার স্ত্রীও অসুস্থ। এক ছেলে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে বিছানায় পড়ে আছেন। এমতবস্থায় তাদের চলাচলের রাস্তাটি প্রতিবেশী নাসির উদ্দিন নিজের দাবী করে। অনেক লোকজন নিয়ে এসে প্রাচীর তুলে রাস্তাটি বন্ধ করে দেয়। এখন তাদের বাড়ি থেকে বের হওয়ার মত কোনো রাস্তা নেই। তারা বাড়িতেই অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছেন।

মুক্তিযোদ্ধা মো. জাফর আলী জানান, তাদের বাড়ি থেকে বের হওয়ার একমাত্র রাস্তাটি বন্ধ করে দেওয়ায় তারা অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছেন। তিনিসহ তার ছেলে অসুস্থ হওয়ায় এবং প্রভাবশালীদের ভয়ে কোথাও গিয়ে অভিযোগ পর্যন্ত করতে পারছেন না। বাড়ি থেকে বেরও হতে পারছেন না।

এ বিষয়ে প্রতিপক্ষ নাসির উদ্দীনের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, তার জমি প্রাচীর দিয়ে ঘিরে নিয়েছেন। ওই মুক্তিযোদ্ধার পরিবার কোনপথ দিয়ে বাড়ি থেকে বের হবে? এমন প্রশ্নের কোন ঠিকঠাক উত্তর না দিয়েই সেখান থেকে চলে যান তিনি।

ওই সংবাদ প্রচারের প্রয়োজনে সেই প্রাচীরের ছবি এবং মুক্তিযোদ্ধার সাক্ষাৎকার গ্রহণ করে চলে আসার সময় নাসিরের ছেলে মো. নাঈম হোসেন (২৭) এবং তার চাচাতো ভাই আব্দুর রহিম ভোলার ছেলে মোঃ সাগর (২৫) সাংবাদিকদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ হুমকি-ধামকি প্রদান করেন। এ ঘটনার সংবাদ প্রচার করলে তাদের প্রাণনাশেরও হুমকি প্রদান করেন। সাংবাদিকের মোটরসাইকেলে তালা দিয়ে তাদের অবরুদ্ধ করে রাখার চেষ্টা করেন।

এ বিষয়ে প্রতিবেশী মশিউর রহমান জানান, বিষয়টি জানার পর সকলে মিলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে, আগামী শুক্রবার উভয়পক্ষকে নিয়ে বসে ওই মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের চলাচলের রাস্তা বের করে দেয়া হবে। সে পর্যন্ত ওই মুক্তিযোদ্ধার পরিবারকে নাসিরের বাড়ির উপর দিয়ে চলাচলের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন বলে জানান তিনি।

ওই সময় পথচারী হিরা, মিল্টনসহ অনেকেই জানান, কোনোভাবেই কারো রাস্তা বন্ধ করা যাবে না। একজন মানুষকে তার বাড়ি থেকে বের হওয়ার রাস্তা অবশ্যই দিতে হবে।

মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আজম উদ্দীন মাহমুদ জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি, অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

  • 60
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে