সাপাহারে মাইক্রোবাস চালকের উপর হামলায় থানায় অভিযোগ

প্রকাশিত: এপ্রিল ১৮, ২০২১; সময়: ৩:৩৩ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাপাহার : নওগাঁর সাপাহারে মাইক্রোবাস চালক আইয়ুব আলী (৪০) কে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাতাড়ীভাবে কিলঘুষি মারা সহ ধারালো অস্ত্র হাসুয়া, বাঁশের লাঠি, কাঠের টুকরা দিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে মাথায় লক্ষ করে স্বজোরে কোপ মারে।

তাৎক্ষনিক আইয়ুব আলী মাথা সরিয়ে নিলে হাসুয়ার কোপ লক্ষ্যভ্রুষ্ট্য হয়ে মাথার পিছনের অংশে লেগে গুরুত্বর রক্তাক্ত জখম হয়। এ সময় আইয়ুব আলী রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে পড়ে গেলে এলোপাতাড়ী ভাবে কিলঘুষি মারা সহ পকেটে থাকা ২৫ হাজার ৭০০ টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

উপজেলার উচাডাঙ্গা গ্রামের মৃত: মনির উদ্দীন এর পুত্র মাইক্রোবাস চালক মো: গোলাপ (৪২) ও মাইক্রোবাস চালক লোকমান হোসেন রিয়াদ (২৫) সহ ৮/১০ জন সন্ত্রাসী কায়দায় দলবদ্ধ হয়ে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে আইয়ুব আলীকে মারধুর করে। রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে পড়ে থাকা আইয়ুব আলী চিৎকার শুরু করলে অভিযুক্ত মাইক্রোবাস চালক গোলাপ, রিয়াদ সহ ৮/১০ জন হুমকী প্রদান সহ প্রানে মেরে ফেলার ভয়ভীতি প্রদান করে ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়।

স্থানীয়রা তাৎক্ষনিক আইয়ুব আলীকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে সাপাহার সরকারী হাসপাতালে নিয়ে আসলে গুরুত্বর অবস্থা দেখে চিকিৎসকগণ রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দ্রুত রেফার্ড করে। বর্তমানে আইয়ুব আলী গুরুত্বর অবস্থায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে।

মাইক্রোবাস চালক আইয়ুব আলীর ভাই আকবর আলী বাদী হয়ে গোলাপ কে ১ নং, রিয়াদ কে ২ নং ও অজ্ঞাত ৮/১০ জনকে বিবাদী করে রাতেই সাপাহার থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে।

শনিবার (১৭ এপ্রিল) ইফতারের পর সন্ধ্যা প্রায় সাড়ে ৭টার সময় সদরের মাইক্রোস্ট্যান্ডে এ ঘটনাটি ঘটেছে। মাইক্রোবাস চালক আইয়ুব আলী উপজেলার লালমাঠিয়াপাড়ার মৃত: ইয়াকুব আলীর পুত্র বলে জানা গেছে।

অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে সাপাহার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তারেকুর রহমান সরকার বলেন, সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

  • 14
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে