চোখের জলে বিদায় নিলেন সাপাহারের ইউএনও কল্যাণ চৌধুরী

প্রকাশিত: এপ্রিল ১৬, ২০২১; সময়: ৭:৫৬ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাপাহার : নওগাঁর সাপাহার উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারী, জনপ্রতিনিধিসহ উপজেলার সাধারণ মানুষের চোখের জলে বিদায় নিয়েছেন সদ্য বিদায়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) কল্যাণ চৌধুরী।

শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৯ টায় দীর্ঘ সাড়ে ৩ বছরের কর্মস্থল সাপাহার ছেড়ে চলে যান তিনি। বর্তমানে তিনি বিভাগীয় শহর রাজশাহী জেলায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে যোগদান করবেন বলে জানা গেছে।

সাপাহার উপজেলা অফিসার্স ক্লাবের আয়োজনে বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ হলরুমে সদ্য বিদায়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) বর্তমানে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক কল্যাণ চৌধুরীর বিদায় সংবর্ধনা ও সদ্য যোগদানকৃত উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আব্দুল্লাহ আল মামুনের বরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এ সময় উপজেলা থেকে বিদায়ী ইউএনও কল্যাণ চৌধুরীর সাথে স্মৃতিরোমন্থন করে বক্তব্য দিতে গিয়ে জনপ্রতিনিধি, বিভিন্ন দপ্তরের অফিসারসহ অনেকেই আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। কেঁদে ফেলেন অনেকেই।

এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) সোহরাব হোসেন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা: মুহা: রুহুল আমিন, উপজেলা কৃষি অফিসার মুজিবুর রহমান, থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তারেকুর রহমান সরকার, অফিসার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শহিদুল ইসলামসহ উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের অফিসার, জনপ্রতিনিধি, সূধীজনসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

বক্তারা বলেন, করোনা সংকটে ও লকডাউন সময়ে খাদ্য সরবরাহ, সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতকরণসহ পরিস্থিতি মোকাবেলায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করেছেন বিদায়ী ইউএনও কল্যাণ চৌধুরী। তিনি সততা ও নিষ্ঠার সাথে তার উপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করেছেন, দিনরাত জনগনের সেবাই কাজ করেছেন। একজন সৃজনশীল ও মানবিক ইউএনও ছিলেন কল্যাণ চৌধুরী।

বক্তারা আরও বলেন, করোনা সংকটে মানুষের পাশে থেকে কাজ করতে গিয়ে তিনি নিজেই করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। তারপরেও তিনি সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করে কাজ করে গেছেন। করোনায় আক্রান্ত রোগীর খাবার ও অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে নিজে পৌঁছে দিয়েছেন।

উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শাহজাহান হোসেন বলেন, মানবিক, সৎ ও সাহসী মানুষ কল্যাণ চৌধুরী। তিনি সততা ও দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করে গেছেন। তিনি যেখানেই যাবেন সেখানেই তার যোগ্যতা ও মেধা দিয়ে সফলভাবে দায়িত্ব পালন করবেন।

বিদায়ী ইউএনও কল্যাণ চৌধুরী তার বক্তব্যে বলেন, সাপাহার উপজেলাবাসীর ভালোবাসা ও সহযোগিতায় আমার উপর অর্পিত দায়িত্ব নিষ্ঠার সাথে পালন করেছি। সবাইকে নিয়ে একসাথে কাজ করে উপজেলাকে এগিয়ে নিয়ে যাবার আহবান করেন তিনি।

তিনি বলেন, এর আগে ডিসি অফিসের ম্যাজিস্ট্রেট, সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসেবে দায়িত্ব পালন করে বিদায় নিলেও এত খারাপ লাগেনি, এই বিদায় বেলায় যতটুকু খারাপ লাগছে- এ কথা বলেই কান্নায় ভেঙে পড়েন এই কর্মকর্তা।

তিনি আরো বলেন, আপনাদের ভালোবাসা ও সহযোগিতার কথা কখনও ভুলব না। সারাজীবন আপনাদের মনে থাকবে। এই সময়ে হয়ত আরও অনেক কাজ করতে পারতাম, যেগুলো করতে পারিনি সে কাজগুলো নবাগত ইউএনও করবেন। কাজ করতে গিয়ে ভুলত্রুটি হলে সেগুলোর জন্য ক্ষমা চেয়ে নেন তিনি।

কল্যাণ চৌধুরী সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, ভালো যতটুকু কাজ করতে পেরেছি সেগুলোর কৃতিত্ব আপনাদের আর ভুল ও ব্যর্থতার সকল দায়ভার আমার।

এদিকে, তিনি দায়িত্ব পালনকালে সাহসিকতা ও বুদ্ধিমত্তা দিয়ে মানুষের জন্য কাজ করছেন। তিনি যেখানে থাকবেন সফলভাবে দায়িত্ব পালন করবেন এমনটাই বলছেন বিশিষ্টজন।

পরে উপজেলা পরিষদ, প্রশাসন, উপজেলার সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান সদ্য যোগদানকৃত ইউএনওকে বরণ করে নেয়।

  • 21
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে