লকডাউনে ফাঁকা উত্তরবঙ্গের প্রবেশদ্বার সিরাজগঞ্জ রোড

প্রকাশিত: এপ্রিল ১৬, ২০২১; সময়: ১১:৫১ am |

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিরাজগঞ্জ : লকডাউনের তৃতীয় দিনে ফাঁকা ছিল উত্তরবঙ্গের প্রবেশদ্বার সিরাজগঞ্জে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ মহাসড়কের সলঙ্গার হাটিকুমরুল (সিরাজগঞ্জ রোড) গোল চত্বর। পাবনা, রাজশাহী, রংপুর ও ঢাকায় চলাচলে উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের ২২ জেলার প্রধান এই প্রবেশ পথটি অতিক্রম করতে এখন নেই কোন রকম যানজট। অথচ লকডাউনের আগে লাখ-লাখ মানুষ আর প্রতিনিয়ত চলা হাজার-হাজার যানবাহনের পদভারে মুখোরিত থাকতো প্রতিক্ষন। আর এখন ফাঁকা। সুনছান নিরাবতা। হঠাৎ যাতায়াতে দেখা যায় পন্যবাহী ট্রাক, পিকাপ, ক্যাভার্ডভ্যান ও ব্যক্তিগত গাড়ি। এরকম দৃশ্য করোনার ছোবলের কারনেই বন্দি হয়ে রইলো প্রকৃতির ক্যামেরায়।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, সিরাজগঞ্জে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ মহাড়কের সয়দাবাদ, কড্ডার মোড়, হাটিকুমরুল সিরাজগঞ্জ রোড এলাকায় শুক্রবার সরেজমিন পরিদর্শনের দেখা যায়, অতীতের মত নেই ব্যস্ততা, নেই হাক-ডাক। মহাব্যস্তময় রাস্তাটি এখন অনেকটা ফাঁকা। নেই কোন গন পরিবহন। মুলত করোনার বিস্তার ঠেকাতে দ্বিতীয় দফায় সরকার ঘোষনার কঠোর লকডাউন কার্যকরে মানুষকে নিরাপদে ঘরে রাখতে এই উদ্যোগ। একেবারে নিতান্তই কোন প্রয়োজন ছাড়া মহাসড়কে পা বাড়াচ্ছেনা কেউ।

সরকারের জারি করা বিধির আওতাধীন গাড়ি গুলো ছাড়া নিষেধ কৃত গাড়ি মহাসড়কে প্রবেশ করলেই বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম গোলচত্তর ও হাটিকুমরুল গোলচত্তরে চেকপোষ্টে আটকে দেয়া হচ্ছে। এছাড়া তল্লাশী চালানো হচ্ছে সন্দেহভাজন পন্যবাহী গাড়ি গুলোকে। যাতে লকডাউনের সুযোগে কোন অবৈধ জিনিস কেউ পাড় করতে না পারে।

এদিকে এ অবস্থায় মহাসড়কের পার্শ্ব রাস্তা দিয়ে কিছু ভ্যান-রিক্সা, ভাড়াটিয়া মোটর সাইকেল এবং ব্যক্তিগত গাড়ি চলাচল করতে দেখা গেছে। হাটিকুমরুল রোড গোলচত্বরে বাঁশের বেরিকেট দিয়ে চেকপোস্ট বসিয়ে তল্লাশিও করা হচ্ছে এ সব যানবাহনে। চেকপোস্টে লকডাউনে বের হওয়ার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র থাকলে যেতে দিচ্ছে, আর কাগজ পত্র/ মুভমেন্ট পাশ না থাকলে উল্টো ফিরিয়ে দিতে দেখা গেছে কিছু কিছু যানবাহনকে।
হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ শাহজাহান আলী জানান, সমগ্র দেশে সর্বাত্মক লকডাউন চলছে।

একদিকে কঠোর লকডাউন ঘোষণা, অন্যদিকে শুরু হয়েছে মাহে রমজান। তাই শুক্রবার ছুটির দিনে রাস্তায় গাড়ি ছিল খুবই কম। শুধুমাত্র পণ্যবাহী গাড়ি আর ব্যক্তিগত কিছু গাড়ি চলাচল করছে। এছাড়া কঠোর লকডাউন মেনে চলতে আমরা পুলিশ সদস্যরা সর্বদা দায়িত্ব পালন করছি। এদিকে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানার ওসি মোসাদ্দেক হোসেন জানান, বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম সংযোগ মহাড়কের হাটিকুমরুল রোড পর্যন্ত যানবাহনের তেমন চাপ নেই। কিছুক্ষন পরপর কয়েকটি যানবাহন টোলপ্লাজায় আসছে । ফাঁকা মহাসড়কে কোন অপরাধ না হয়, সেজন্য পুলিশী পদক্ষেপ জোড়দার করা হয়েছে।

এদিকে সিরাজগঞ্জ শহর তথা ৯টি উপজেলা সদর, ১২টি থানা সহ জেলার গুরুত্বপুর্ন হাট-বাজর গুলোর বিধি জারির আওতাভুক্ত দোকান-পাট বন্ধ রয়েছে। তবে খোলা রয়েছে বিধিমুক্ত কাঁচা বাজার, ঔষধসহ নিত্যপন্যের দোকান গুলো। সবাইকে সামাজিক দুরত্ব বজায় ও মাস্ক ব্যবহারে প্রচারনা চালাচ্ছে প্রশাসন।

  • 47
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে