লগডাউনেও বন্ধ নেই তাড়াশের নওগাঁ হাট

প্রকাশিত: এপ্রিল ১৫, ২০২১; সময়: ৪:৫০ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, তাড়াশ : সরকারের কঠোর সিদ্ধান্ত চলতি এক সপ্তাহ সারাদেশ ব্যাপি লগডাউন শুরু হয়েছে। জরুরী প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে বের হওয়া যাবে না। যদিও জরুরি প্রয়োজনে ‘মুভমেন্ট পাস’ নিয়ে বাইরে যাওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। কিন্ত সরকারী সেই সিদ্ধান্তকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার নওগাঁ হাট চলছে হাজার হাজার মানুষের সমাগমে।

জানা যায়, উপজেলার নওগাঁ হাট বসে প্রতি বৃহস্পতিবার। দূর-দূরান্ত থেকে নানা ধরনের পণ্য নিয়ে হাজির হন বিক্রেতারা। সারা দিন চলে বিকিকিনি। সে মোতাবেক বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) বসেছে হাট। সেখানে নেই কোন স্বাস্থ্যবিধির বালাই। সপ্তাহের এক দিন বসা ‘সাপ্তাহিক হাট’ প্রয়োজনীয় সব ধরনের জিনিসই পাওয়া যায়। শাকসবজি থেকে শুরু করে ঘরের আসবাব, কাচের জিনিস, হাঁড়ি-পাতিল, বিছানার চাদর, নারীদের জামাকাপড় সবই পাওয়া যায়।

বৃহস্পতিবার সকালে দেখা যায়, ক্রেতা-বিক্রেতায় সরগরম বিশাল এলাকা। সেখানে একে অপরের গা ঘেষে চলছে। কারো মুখে মাস্ক থাকলেও অধিকাংশ মানুষের মুখে মাস্ক নেই। মানা হচ্ছে না কোন ধরণের স্বাস্থ্যবিধি। করিমন, নসিমন, পিকআপসহ নানা ধরনের গাড়ী করে আসছে ক্রেতা-বিক্রেতারা।

উপজেলার নওগাঁ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলহাজ খন্দকার বলেন, সরকারী বিধি নিষেধ অমান্য করে চলছে হাট। হাট নয় যেন করোনা চাষ হচ্ছে। প্রশাসনের কোন পদক্ষেপ নেই। দ্রুত করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে হাট বন্ধ করে দেয়ার দাবী করছি।

নওগাঁ হাট কমিটির সদস্য ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হাই বলেন, হাট পরিচালনা করছে স্থানীয় এমপির ভাই এ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম। মুলত আমরা তার প্রতিনিধি হিসেবে আছি। তাকেই বলেন।

এ বিষয়ে এ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম বলেন, লগডাউনের মধ্যে হাট চলবে কি চলবে না। তা দেখবে প্রশাসন। কারণ প্রশাসন তো আমাদের হাট বন্ধ রাখতে নিষেধ করেননি। আর এ নিয়ে নিউজ করার কি আছে।

তাড়াশ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মেজবাউল করিম বলেন, হাটে লোকজন আসবে কি করে লগডাউনের মধ্যে। তারপরেও বিষয়টা আমি দেখছি।

  • 41
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে