মান্দায় চাঁদা দাবির মামলায় গ্রেপ্তার ৩

প্রকাশিত: এপ্রিল ৬, ২০২১; সময়: ৫:৪৫ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, মান্দা : নওগাঁর মান্দায় দোকানঘর নির্মাণে বাঁধা, প্রাণনাশের হুমকি, মারপিটসহ চাঁদা দাবির ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় ৩ চাঁদাবাজকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার দুপুরে নওগাঁ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রকিবুল আক্তারের নেতৃত্বে উপজেলার সতিহাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, উপজেলার গনেশপুর ইউনিয়নের গনেশপুর গ্রামের সোহরাব হোসেন বাবলুর ছেলে সোহেল রানা (৪২), একই গ্রামের মকলেছুর রহমানের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (৩৮) ও শ্রীরামপুর গ্রামের আতোয়ার হোসেনের ছেলে সাগর হোসেন (২২)।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার সতিহাট শহিদ মিনারের পশ্চিমপাশে ব্যক্তিমালিকানার জমিতে দোকানঘর সম্প্রসারণের জন্য পুরাতন ঘরটি ভেঙে দিয়ে নতুনভাবে কাজ শুরু করেন ব্যবসায়ি রেজাউল ইসলাম। কাজ শুরুর পর থেকেই সোহেল রানা, জাহাঙ্গীর আলমসহ সংঘবদ্ধ চক্র ব্যবসায়ি রেজাউল ইসলামের নিকট মোটা অংকের চাঁদা দাবি করে আসছিল।

একই দাবিতে সোমবার সকালে সোহেল রানা ও জাহাঙ্গীর আলমের নেতৃত্বে ১০-১২ জনের সংঘবদ্ধ একটি দল দেশিয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেয়। এ সময় চক্রটি ব্যবসায়ি রেজাউল ইসলামকে মারপিটসহ প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে।
এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ব্যবসায়ি রেজাউল ইসলাম বাদি হয়ে সোমবার রাতে সোহেল রানা, জাহাঙ্গীর আলমসহ অজ্ঞাতনামাদের বিরুদ্ধে মান্দা থানায় মামলা দায়ের করেন।

মান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহিনুর রহমান জানান, ব্যবসায়ি রেজাউল ইসলামের দায়েরকৃত মামলার তদন্তে সত্যতা পাওয়া যায়। এরপর নওগাঁর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) রকিবুল আক্তারের নেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্স মঙ্গলবার দুপুরে সতিহাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে সোহেল, জাহাঙ্গীর ও সাগরকে গ্রেপ্তার করে।

ওসি আরও জানান, গ্রেপ্তারকৃতরা এলাকার চিহ্নিত চাঁদাবাজ। টাকার বিনিময়ে অন্যের জমি জবরদখল, সন্ত্রাসী কর্মকান্ডসহ বিভিন্ন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান থেকে তারা নিয়মিত চাঁদা আদায় করে থাকে।

  • 32
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে