লকডাউনেও ২৪ ঘন্টা সেবা খাজা ইউনুস আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে

প্রকাশিত: এপ্রিল ৫, ২০২১; সময়: ২:৩৪ pm |
নিজস্ব প্রতিবেদক, সিরাজগঞ্জ : অলাভজনক চিকিৎসা ও শিক্ষা সেবা প্রতিষ্ঠান সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার এনায়েতপুরে অবস্থিত বিশ্বমানের খাজা ইউনুস আলী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে (কেওয়াইএএমসিএইচ) দ্বিতীয় বছরের মত করোনার লকডাউনেও ২৪ ঘন্টা জটিল-কঠিন সব ধরনের চিকিৎসা সেবা অব্যাহত রাখবে।
গতবার লকডাউনে বেসরকারী ক্লিনিক হাসপাতাল বন্ধের কারনে দেশের অসুস্থ্যরা যখন চিকিৎসা নিতে পারেনি, তখন এই হাসপাতালের চিকিৎসক, কর্মকর্তা, কর্মচারী, প্রতিষ্ঠানের মালিকরা হাসপাতালে করোনা সহ সব ধরনের চিকিৎসা সেবা অব্যাহত রেখেছে। করোনায় আক্রান্ত প্রায় সহস্রাদিক রোগীকে বঁাচিয়ে প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পরিষদের সদস্য সহ আক্রান্ত হয়েছে হাসপাতালের ৮ শতাধীক চিকিৎসক-কর্মচারী। যা দেশের হাসপাতাল গুলোতে সেবায় বিরল দৃষ্টান্ত।
একই ভাবে করোনার বিস্তার রোধে এবার দ্বিতীয় বছরে সোমবার থেকে ৭ দিন জারি করা লকডাউনেও সরকারী বিধি নিষেধ মেনে খাজা ইউনুস আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনা সহ সকল ধরনের চিকিৎসা সেবা অব্যাহত রাখবে বলে জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পরিষদের পরিচালক মোহাম্মদ ইউসুফ।
তিনি জানান, গতবার মহামারী করোনা ঠেকাতে বিস্তার শুরু থেকেই শতভাগ মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করে চলছে যাবতীয় কার্যক্রম। গত বছরের ২৪ মার্চ থেকে করোনা সচেতনতায় সরকারী ভাবে নেয়া গৃহিত পদক্ষেপ অনুসারে আমাদের হাসপাতালে ‘নো মাস্ক নো চিকিৎসা-নিরিক্ষা’ ও হ্যান্ড স্যানিটাইজ পন্থা আগত রোগী, চিকিৎসক, কর্মকর্তা-কর্মচারী সহ সকল দর্শনার্থীদের ক্ষোত্রে নিশ্চিত করা হয়।
এছাড়া করোনা কালে দেশের বেসরকারী হাসপাতাল ও ক্লিনিক গুলো যখন রোগটির সংক্রামনের ভয়ে বন্ধ ছিল, তখন আমরা দেশের ১৫টি টিভি চ্যানেলে আমাদের হাসাপাতাল সচলের ঘোষনা দিয়ে প্রতিষ্ঠান খোলা রেখে রোগীদেরকে অকুতভয় চিকিৎসক-কর্মচারীরা স্বাস্থ্য সুরক্ষা গ্রহন করে জটিল-কঠিন রোগীর জীবন বঁাচিয়েছে। বর্তমানেও স্বল্প খরচে সমগ্র দেশের রোগীদের খাজা ইউনুস আলী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালটি সেবা দিয়ে যাচ্ছে।
এদিকে ৫০০ বেডের এ হাসপাতালে ২২টি আইসোলেশন বেডে করোনায় আক্রান্ত প্রায় সহস্রাদিক রোগীকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। বর্তমানেও করোনা আক্রান্ত রোগীরা এখানে ভর্তি রয়েছেন।
Attachments area
  • 1.8K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে