কর্তৃপক্ষের উদাসীনতায় তাড়াশে এখনো পুকুরে পড়ে আছে সরকারি বটগাছ

প্রকাশিত: এপ্রিল ২, ২০২১; সময়: ৪:৪২ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, তাড়াশ : বটগাছের শীতল ছায়ায় প্রাণ জুড়াবে পথচারী। এমন ভাবনা থেকেই সিরাজগঞ্জের তাড়াশ কাটাগাড়ি-দেওড়া গ্রামীণ সড়কের মাঝে একটি বটগাছ রোপন করেছিলেন জীবন প্রামানিক। তিনি মারা গেছেন অনেক দিন আগেই। ঐ শতবর্ষী সরকারি গাছটি অনেকদিন ধরে পড়ে আছে সেই সড়কের পাশেই একটি পুকুরের মধ্যে।

এদিকে বিশাল আকৃতির বটগাছ পুকুরের মধ্যে পড়ে থাকার কারণে মাছচাষ করতে না পেরে আর্থিকভাবে ক্ষতির সম্মূখীন হচ্ছেন পুকুরের মালিক।

জীবন প্রামানিকের ছেলে মৃত জগদীস প্রামানিকের বউ অনিতা রানী (৫৮) বলেন, তার শশুরের রোপনকৃত বটগাছের বয়স ১০০ বছরেরও বেশি হয়ে গেছে। গত বছরের বৈশাখ মাসে কাল বৈশাখী ঝড়ে গাছটি পুকুরের মধ্যে পড়ে যায়।

পুকুরের মালিক শ্রী অনীল কুমার বলেন, সরকারি রাস্তার গাছ তার পুকুরের মধ্যে পড়ে আছে। স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ওয়ার্ড মেম্বারকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। কিন্তু এতদিনেও গাছটি অপসারণ করার কোন উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। বটগাছের কারণে পুকুরে মাছচাষ করা বন্ধ রয়েছে।

দেশীগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুস বলেন, বটগাছটি পড়ে যাওয়ার পরই ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মো. মুশতাগীরকে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছিল।

দেশীগ্রাম ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মো. মুশতাগীর বলেন, বটগাছটি পুকুর থেকে অপসারণ করা জরুরি।

সরেজমিনে মঙ্গলবার সকালে দেখা গেছে, তাড়াশ কাটাগাড়ি-দেওড়া গ্রামীণ সড়কের মাঝে দেওড়া মোড় এলাকায় ঐ বিশাল আকৃতির বটগাছটি পুকুরে পড়ে আছে। পড়ে থাকা বটগাছের কারণে সড়কের মোড়ের এপাশ-ওপাশ থেকে পথচারী ও যানবাহন কিছুই দেখা যায়না। ফলে ঝুঁকিপূর্ণ মোড়টিতে দুর্ঘটনার ঝুঁকিও বেড়ে গেছে।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মেজবাউল করিম বলেন, দ্রুততম সময়ের মধ্যে বিধি মোতাবেক বটগাছটি পুকুর থেকে অপসারণ করা হবে।

  • 13
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে