পাবিপ্রবিতে শিক্ষক কর্মকর্তাদের মানববন্ধন ও সমাবেশ

প্রকাশিত: মার্চ ২২, ২০২১; সময়: ৪:০২ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, পাবনা : পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. এম আব্দুল আলীম কর্তৃক বিশ্ববিদ্যালয়ের গোপন নথি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ ও বিশ^বিদ্যালয়ের কর্মকর্তার নামে মিথ্যা গুজব প্রচারের প্রতিবাদে মানববন্ধন এবং প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বিশ^বিদ্যালয়ের অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের আয়োজনের সোমবার দুপুরে প্রশাসনিক ভবনের সামনের রাস্তায় এই প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি হারুনর রশিদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সোহাগ হোসেনের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন, রেজিস্ট্রার (চলতি দায়িত্ব) বিজন কুমার ব্রহ্ম, ইতিহাস ও বাংলাদেশ স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. মোঃ হাবিবুল্লাহ্, ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের অধ্যাপক ড. কামরুজ্জামান, শিক্ষক সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. ফজলুল হক, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (চলতি দায়িত্ব) তাওহীদা খানম, ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. হাসিবুর রহমান, অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার কামরুল হাসান, জনসংযোগ দপ্তরের উপ-পরিচালক ফারুক হোসেন চৌধুরী, সহকারী প্রক্টর ফারুক আহম্মেদ, কর্মচারী পরিষদের সভাপতি মোঃ মহিউদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক শাহরিয়ার হোসেন পাভেল।

মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা বলেন, ড. আব্দুল আলীম দীর্ঘদিন ধরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে অস্থিতিশীল করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত আছেন। একজন শিক্ষকের এহেন কর্মকান্ডে শিক্ষক সমাজ লজ্জিত। প্রশাসনের নির্দেশে কাজ করে থাকেন শিক্ষক-কর্মকর্তারা। বিশ্ববিদ্যালয়ের এই আঘাত মেনে নেওয়া যায় না।

বক্তারা এ সময় বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন কর্মকান্ডকে বাঁধাগ্রস্ত এবং বিশ্ববিদ্যালয়কে দেশবাসীর সামনে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্যই ড. এম আব্দুল আলীম বারবার প্রশাসনের গোপন নথি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করে যাচ্ছেন। বেশ কিছুদিন যাবত তিনি বিশ্ববিদ্যালয়কে নিয়ে অপপ্রচার করে যাচ্ছেন। সকলকে বিপদের মধ্যে ফেলে দিচ্ছেন। এই অপশক্তিকে সকল শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী মিলে সামগ্রিকভাবে প্রতিহত করতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের তথ্য অনুমতি ব্যতীত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশকারীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেন বক্তারা।

  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে