জয়পুরহাটে বিএনপি প্রার্থীর ভোট বর্জন

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২১; সময়: ৯:৫০ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, জয়পুরহাট : বিএনপি প্রার্থী অধ্যক্ষ সামছুল হকের নির্বাচন বাতিল করে নতুন নির্বাচনের দাবীর মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে জয়পুরহাট পৌরসভার নির্বাচন। রবিবার সকাল আটটা থেকে জয়পুরহাট পৌরসভার ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহন শুরু হয়।

সকাল সাড়ে আটটায় বিএনপি’র মেয়র প্রার্থী অধ্যক্ষ সামছুল হক সরকারি বাজলা উচ্চ বিদ্যালয়ে ভোট দিয়ে সাংবাদিকদের জানান, বিভিন্ন কেন্দ্রে তাদের এজেন্টদের বের করে দেওয়া হচ্ছে। কোন কোন কেন্দ্রে নৌকা ছাড়া অন্য প্রতিকে ভোট দিতে দেওয়া হচ্ছেনা।

দুপুর বারোটার সময় তিনি সাংবাদিকদের ডেকে ভোট থেকে সড়ে দাড়ানো এবং এই ভোট প্রহসনের ভোট সেই সাথে সন্ত্রাসী দিয়ে তার নেতা-কর্মী ও এজেন্টদের বের করে দিয়ে মেশিন দখল করে ভোট দেওয়ার অভিযোগ করেন। তিনি দাবী করেন যেহেতেু এইটা কোন ভোট হচ্ছেনা তাই এই ভোটে থাকা বা না থাকার কিছু নাই। নতুন করে ভোট গ্রহনের জন্য তিনি নির্বাচন সংশ্লিষ্টদের কাছে দাবী জানান।

বিএনপি’র নির্বাচনী এজেন্ট জাহেদা কামাল অভিযোগ করে বলেন নৌকার মেয়র প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক নিজে তাকে হুমকি দিয়েছেন। তিনি বলেন তার দুটি সন্তান রয়েছে তাদের নিয়ে তিনি ভীত। একই অভিযোগ করেছেন বাজলা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের এজেন্ট মঞ্জুরে মওলা পলাশ। তিনি বলেন, নৌকার পক্ষে একজন নেতা তাকে সরাসরি কেনন্দ্র থেকে বের হয়ে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

এদিকে, রামদেও বাজলা উচ্চ বিদ্যালয়, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, সরকারি মহিলা কলেজ, কাশিয়া বাড়ি, খঞ্জনপুরসহ সবকটি কেন্দ্র থেকে বিএনপি’র এজেন্টদের বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

এদিকে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ষহিদুল ইসলাম বলেন নির্বাচন সুষ্ঠ হয়েছে। আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক বলেন, নির্বাচন সুন্দর হয়েছে। বিএনপি সব সময় মিথ্যা অভিযোগ করে থাকে।

ইাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন ভোটার জানান, তারা শুধু মেশিনে আঙ্গুল টাচ করেছে প্রতিক সিলেকশন করে ভোট দিয়েছে এজেন্টরা। তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে দেওয়া হয়নি। ।

  • 7
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে