প্রেমিকার সাথে রুম ডেটিং করতে গিয়ে পুলিশ সদস্য ধরা খেয়ে বিয়ে

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২২, ২০২১; সময়: ৯:৪৯ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : গাইবান্ধা শহরস্থ প্রফেসর কলোনীতে প্রেম করতে এসে এক পুলিশ কনস্টেবলকে এলাকাবাসী হাতে নাতে আটক করেছে। আটককৃত পুলিশ কনেস্টবল নিজেকে শেষ রক্ষা করতে অবশেষে প্রেমিকা সুষমিতাকে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন।

জানা গেছে, গাইবান্ধা শহরস্থ প্রফেসর কলোনীর মৃত্যু আব্দুস সামাদের মেয়ে স্বামী পরিত্যক্ত কন্যা মোছাঃ সুষমিতার সাথে বগুড়া সদর উপজেলা কৈগাড়ী গ্রামের মৃত্যু আঃ হামিদের পুত্র সেলিম রেজা ওরফে আতিক ইসলাম ৬ মাস যাবৎ মোবাইল ফোনের মাধ্যমে কথাবর্তার এক পর্যায়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন।

এক পর্যায়ে গত ২০ জানুয়ারী ২০২১ইং রাত ১০ টার সময় পাগল প্রেমিক আতিক ইসলাম গাইবান্ধার বিষয়টি এলাকাবাসী টের পেয়ে তাদেরকে হাতে নাতে আটক করেন। পরদিন জানান যে, তিনি রাজশাহীতে মেট্রো পলিটিনে কর্মরত আছেন। ইতিপূর্বে তার আরও ২টি বিবাহিত স্ত্রী আছে।

মোবাইল ফোনে সুষমিতার সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তাই গাইবান্ধার প্রফেসর কলোনীতে আসে।
স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে নিজেকে শেষ রক্ষা করতে না পেরে আপোষরফার ভিত্তিতে পূর্বের ২য় স্ত্রী অনুমতি ব্যতিরেখে নিরুপায় হয়ে এলাকাবাসী মধ্যে কাবিন নামায় আতিক ইসলাম ভুয়া নাম ব্যবহার করে সুষমিতাকে ৩ লক্ষা টাকা দেনমোহরানা ধার্য করে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।

তার সঠিক নাম সেলিম রেজা বিপি নং ৯২১২১৫১৭৩৬ কনস্টেবল অনলাইনে পাওয়া গেছে। বিষয়টি এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

  • 239
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে