সুজানগরে ঝুঁকিপূর্ণ বাঁশের সাঁকোই ভরসা তিন গ্রামের মানুষের

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১০, ২০২১; সময়: ৩:৫৭ pm |

এম এ আলিম রিপন, সুজানগর : সুজানগর উপজেলার সাগরকান্দি ইউনিয়নের পুকুননিয়া,দড়ি মালঞ্চি সহ তিন গ্রামের প্রায় ৭ হাজার মানুষের চলাচলের একমাত্র ভরসা বাঁশের সাঁকো। বিকল্প কোন পথ না থাকায় এই সাঁকো দিয়েই যাতায়াত করতে হয় গ্রামবাসীদের।

স্থানীয়দের উদ্যোগে নির্মিত সাঁকোটি প্রতিবছর মেরামত করেন নিজেরাই। সাগরকান্দি ইউনিয়নের ফুলতলা ও পুকুননিয়া গ্রামের মধ্যখানে অবস্থিত বাদাই নদী। নদীর উপর স্থায়ী কোন সেতু না থাকায় নিজেদের নির্মিত বাঁশের সাঁকো দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছেন এ অঞ্চলের মানুষেরা। গ্রামবাসী জানায় এক-দুই নয়,বছরের পর বছর এমন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে তিন গ্রামের মানুষের। ঝুঁকিপূর্ণ এ সাঁকো পার হতে গিয়ে অনেকবার দুর্ঘটনায় পড়তে হয়েছে। বর্ষায় এ দুর্ভোগ পৌঁছায় আরো চরমে। স্থানীয় গ্রামের বাসিন্দা আক্কাজ প্রাং বলেন নদীর উপর একটি ব্রিজ নির্মাণের অভাবে দীর্ঘদিন ধরে বর্ষা মৌসুমে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নৌকা দিয়ে পারাপার হতে হয় আর শুষ্ক মৌসুমে বাঁশের সাঁকোই চলাচলের জন্য একমাত্র ভরসা।

স্থানীয় বাসিন্দা হোসনেয়ারা খাতুন বলেন ব্রিজ না থাকায় প্রায় সারাবছরই স্কুল, কলেজ ও মাদ্রারাসাগামী ছেলেমেয়েদের নিয়ে আমাদের আতংকে থাকতে হয়। এছাড়া গ্রামের কোন মানুষ অসুস্থ হলে হাসপাতালে নিতে কষ্টের সীমা থাকেনা। হোসেন আলী নামক এক ব্যক্তি বলেন প্রতিবছর দুইপাড়ের বাসিন্দারা স্বেচ্ছাশ্রমে বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করেন আর চাঁদা তুলে কেনেন বাঁশ-খুটি।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শাহীন চৌধুরী বলেন স্থানীয় কৃষকেরা তাদের উৎপাদিত পণ্যসামগ্রী সহজভাবে বাজারজাত করতে না পারায় ন্যায্য দাম প্রাপ্তি থেকেও বঞ্চিত হয়ে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। পাবনা-২ আসনের এমপি আহমেদ ফিরোজ কবির বলেন ইতিমধ্যে ব্রিজ নির্মাণের প্রায় সকল প্রক্রিয়া সম্প্নন করা হয়েছে। আশা করছি মুজিববর্ষেই এখানে প্রায় দেড় কোটি টাকা ব্যয়ে ৯০ ফুট লম্বা ব্রিজ নির্মাণ কাজের শুভ সূচনা করা হবে।

  • 47
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে