যাত্রী হিসেবে বাসে উঠে ডাকাতি, দুজনকে গুলি করে ৪ লাখ টাকা লুট

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৭, ২০২০; সময়: ৪:৪৯ pm |

পদ্মাটােইমস ডেস্ক : চট্টগ্রাম থেকে যাত্রীবেশে সৌদিয়া পরিবহনের একটি বাসে উঠে ডাকাত দলের সাত সদস্য বাসের দুই যাত্রীকে গুলি করে এবং অন্তত ১৫ জনকে মারধর করে চার লাখ টাকা লুট করে নিয়েছেন।

এ সময় অস্ত্রধারী ডাকাত দল যাত্রীদের কাছ থেকে ১৬টি মোবাইল ফোনও ছিনিয়ে নেন। গুলিবিদ্ধ দুই যাত্রীর অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।

শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) ভোরে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। গুলিবিদ্ধদের মধ্যে মো. মামুন নামের একযাত্রীকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কক্সবাজারের চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাকের মো. জুবায়ের বলেন, চট্টগ্রাম থেকে ৪০ জন যাত্রী নিয়ে সৌদিয়া পরিবহনের বাসটি টেকনাফ যাচ্ছিল। যাত্রীবেশী ডাকাত দলের সাত সদস্য বাসটিতে ছিলেন। তারা চট্টগ্রাম নতুন ব্রিজ কাউন্টার থেকে টিকিট নিয়ে বাসে ওঠেন।

ওসি জানান, বাসটি ভোর সাড়ে তিনটার দিকে চকরিয়ায় ফাঁহাসিয়াখালী ঢালে পৌঁছালে সশস্ত্র ডাকাত দল যাত্রীদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে যাত্রীদের মারধর এবং লুটপাট করে বাস থেকে নেমে পালিয়ে যায়।

তিনি বলেন, বাসের চালক, হেলপার ও যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলে আমরা জানতে পেরেছি, ডাকাতদল যাত্রীদের ১৬টি মোবাইল সেট এবং নগদ প্রায় চার লাখ টাকা লুট করেছে। এ সময় বাধা দেওয়ায় ডাকাতরা দুজনকে গুলি করে। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

এ ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে জানিয়ে ওসি বলেন, এই ডাকাতির সঙ্গে কারা জড়িত তা খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে।

পরিবহন শ্রমিকেরা জানান, চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে এক সময় প্রতিনিয়ত ডাকাতির ঘটনা ঘটতো। কিন্ত আইন-শৃংখলা বাহিনীর তৎপরতায় ডাকাতি বন্ধ হয়ে যায়। কিন্তু সম্প্রতি আবার ডাকাতি শুরু হয়েছে।

তারা জানান, অতিসম্প্রতি ধারাবাহিকভাবে প্রথমে মারসা, এরপর এসআলম এবং সর্বশেষ সৌদিয়া বাসে ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। এতে আবার ডাকাত আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

  • 30
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে