নওগাঁর নিয়ামতপুরে বাড়ি পেলেন ২৬ গৃহহীন

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৩, ২০২০; সময়: ৯:৩৬ pm |

আরিফুল হক সোহাগ, নওগাঁ : নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলাতে গ্রামীণ অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণ (টি.আর) কর্মসুচির আওতায় গৃহহীনদের মাঝে দুর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ নির্মাণ প্রকল্প বাস্তবায়িত হয়েছে। ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে জেলার নিয়ামতপুর উপজেলার ২৬(ছাব্বিশ) জন যা ৭৭ লক্ষ ৯৬ হাজার ৩৬০ টাকা ব্যয়ে অসহায় গৃহহীনদের মাঝে গ্রামীণ অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণ (টি আর) কর্মসূচির আওতায় নির্মিত হয়েছে।

উপকারভোগীরা তাদের নিজ জমিতে দুর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ সরকারের কাছে থেকে পেয়ে বর্তমান সরকারের প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছেন। দীর্ঘদীন অচল বাসগৃহ এবং জমি আছে কিন্তু গৃহ নির্মান করতে পারছেন না এ ভাবে বসবাস করতে থাকা পরিবারগুলোকে সরকার নিজ খরচে গৃহ নির্মান করে দেওয়ায় তারা অনেক উপকৃত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন ।

নওগাঁ জেলার নিয়ামতপুর উপজেলার নিয়ামতপুর ইউনিয়নের সাংশৌল এলাকার উপকারভুগী অসহায় আদিবাসী সমকীসকু জানান- তার পরিবার সদস্যদের নিয়ে অসহায় দিন যাপন করছিলেন। তার বাবা মুসাই কিসকু বার্ধক্যজনিত কারনে অসুস্থা হয়ে বাড়িতে পড়ে আছেন। বাকি সদস্যদের নিয়ে ভাঙ্গা মাটির বাড়িতে রোদ বৃষ্টিতে জীবন দুর্বিশহ হয়ে পড়েছিলো। তার নিজের পরিবারের দৈনন্দিন খরচ যোগাতে তিনি নিজে কৃষি জমিতে কাজ করে অনেক কষ্টে সংসার পরিচালনা করতে হয়। বাড়ি মেরামত বা নতুন করে দালান ঊঠানো তার পক্ষে এমন দুর্বিষহ চিন্তা মাথায় নিতে পারতেন না তিনি।

এমতাবস্থাায় সরকারি ভাবে দরখাস্ত করবার পর উপজেলা প্রশাসনের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগ বাড়ি পরিদর্শন শেষে তাদের বাড়ি নতুন করে নির্মান করে দেন। তিনি জানান- বৃষ্টি, রোদ এবং শীতের সময়ের বিগত দিনের বিপর্যয়ের কবল থেকে এবার তারা রক্ষা পেয়েছেন এতে করে সরকার এবং নিয়ামতপুর উপজেলা প্রশাসনের প্রতি তাদের পরিবার অনেক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন ।

এদিকে নিয়ামতপুর উপজেলাতে ২৬টি অসহায় গৃহহীন পরিবারের মাঝে গৃহনির্মান প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়া মারীয়া পেরেরা বলেন, সরকারী প্রকল্পের আওতায় উপজেলায় গৃহহীন পরিবারের মাঝে দুর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ নির্মান প্রকল্প বাস্তবায়িত হয়েছে। স্বচ্ছ পর্যবেক্ষন এবং সঠিক তদারকিতে নির্মান ব্যয় নিশ্চিত করার কাজ ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার সাধারণ মানুষের কাজ করে যাচ্ছে। তারই ধারবাহিকতায় নওগাঁ জেলার নিয়ামতপুর উপজেলায় ২৬টি পরিবার নতুন করে বাসগৃহ পেয়েছেন। এতে করে সরকার তার কাজের মধ্যদিয়ে নিজ গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে এবং সাধারণ মানুষ সরকারি সুযোগ সুবিধা গ্রহন করছে। সঠিক সময়ে প্রকল্প বাস্তবায়ন হওয়ায় উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা এবং কর্মচারিবৃন্দের প্রতি ধন্যবাদ জানান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

উপজেলার গৃহহীন পরিবারের মাঝে দুর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ নির্মান প্রকল্প বাস্তবায়ন প্রসঙ্গে নিয়ামতপুর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ তরিকুল ইসলাম বলেন, উপকারভোগীরা উপজেলায় আবেদন করার পরিপেক্ষিতে উপজেলা প্রশাসন তাদের গৃহনির্মান উপযোগী কিনা তা পর্যবেক্ষনের মাধ্যমে নির্বাচন করা হয়েছে। প্রকল্প হাতে পাওয়ার পর থেকে কাজ অতি দ্রুত সম্পূর্ন করা হয়েছে।

কাজ শেষে অসহায় পরিবার গুলোর হাতে তা সঠিক সময়ে হস্তান্তর করা হয়েছে। এতে করে ওই অসহায় পরিবার গুলো সঠিক সময়ে তাদের নতুন বাড়িতে বসবাস শুরু করতে পেরেছেন।

 

  • 47
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • রাসিকের পৌরকর পরিশোধে বিশেষ ছাড়
  • পুঠিয়ায় কেন্দ্রীয় নেতাদের শুভেচ্ছা জানানোকে কেন্দ্র করে ছাত্রদলের দু’গ্রুপে সংঘর্ষ
  • পেঁয়াজ আমদানিতে ৫ শতাংশ শুল্ক প্রত্যাহার
  • সিন্ডিকেট করে চালের মূল্য বাড়ানো হলে চরম মূল্য দিতে হবে ব্যবসায়ীদের: খাদ্যমন্ত্রী
  • দেশে করোনায় মোট মৃত ৪৯৩৯
  • অস্বাভাবিক বিদ্যুৎ বিলের প্রতিবাদের মানববন্ধনে চড়াও নেসকো
  • সোনামসজিদে চালুর পরদিন ফের পেঁয়াজ আমদানী বন্ধ
  • বিশ্বে তিন কোটি মানুষ অভুক্ত, সাহায্য প্রয়োজন ধনীদের: বিশ্ব খাদ্য সংস্থা
  • তৃণমূলে আ.লীগের পাঁচ সাংগঠনিক নির্দেশনা
  • বাংলাদেশের বর্জ্য পানিতে পাওয়া গেছে করোনা
  • সব পৌরসভায় প্রার্থী দিবে জাতীয় পার্টি
  • ভারতে করোনার সংক্রমণ ছাড়াল ৫৪ লাখ
  • ইউজিসির শুনানিতে যাননি রাবির ভিসি-প্রোভিসি
  • সাহেদের অস্ত্র মামলার রায় ২৮ সেপ্টেম্বর
  • এক ট্রাক উদ্ধারে গিয়ে আরেক ট্রাকের ধাক্কায় এসআই নিহত
  • উপরে