দুধে ৭০ শতাংশ পানি-চকপাউডার আর ময়দা, ইউএনও’কে দেখে গোয়ালার দৌড়!

প্রকাশিত: মে ১০, ২০১৯; সময়: ১০:১১ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ভৈরবে ইউএনওকে দেখে দৌড়ে পালালেন এক গোয়ালা। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইসরাত সাদমীন ভৈরব শহরের জগনাথপুর এলাকার বিনি বাজারে গেলে এই ঘটনাটি ঘটে।

ইউএনও পুলিশ নিয়ে ওই বাজারে গেলে এক গোয়ালা তার বালতির দুধ রাস্তায় রেখেই দৌড় দিয়ে পালিয়ে যান। এসময় তার দৌড় দেখে পাশের আরও তিনজন গোয়ালাও দৌড়ে পালান। অভিযানে থাকা পৌর স্যানেটারী পরিদর্শক নাসিমা বেগম গোয়ালাদের বালতির দুধ পরীক্ষা করলে দেখতে পান ভেজাল দুধ আছে বালতিতে।

প্রতি লিটার দুধে ৭০০ গ্রাম করে (অর্থাৎ, ৭০ শতাংশ) পানি আছে এবং দুধে মেশানো হয়েছে চক পাউডার আর ময়দা। এই বাজারে রমজান মাসের আগেও দুধ বিক্রি হত। কিন্ত রমজান মাসের শুরুতেই দুধ বিক্রির পরিমান বেড়ে যায়। এরপর ইউএনও ভেজাল দুধ বালতি থেকে ড্রেনে ফেলে দেন। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন ইউএনও ইসরাত সাদমীন। গোয়ালাদের না পাওয়ায় এদিন তাদেরকে জরিমানা করা সম্ভব হয়নি।

স্যানেটারি পরিদর্শক নাসিমা বেগম জানান, বিনিবাজারে রমজানের আগেও আমি অভিযান চালিয়েছি। তখনও দুধে ভেজাল পেয়েছি। তবে ভেজালে তখন পানির পরিমান কম ছিল। গোয়ালারা চক পাউডার, ময়দাসহ নানা কেমিক্যাল দিয়ে দুধের রং ও গাঢ় করত। ক্রেতারা না চিনে সুন্দর কালার দেখে ভেজাল দুধ কিনতেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে