শিবগঞ্জে দুই মাসে নিহত ১০

প্রকাশিত: মে ২, ২০১৯; সময়: ৯:৪২ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, শিবগঞ্জ : চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার পৃথক ঘটনায় গত ২ মাসে এক নবজাতকের মরদেহ উদ্ধারসহ ১০ জন নিহত হয়েছে। এর মধ্যে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী- বিএসফের গুলিতে ৪ জন ও পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ৫ জন নিহত হন।

নিহতরা হলেন, উপজেলার মনাকষা ইউনিয়নের তারাপুর চটকপাড়ার তৈমুর রহমানের ছেলে বিশারত আলী বিশু (২২), তারাপুর মন্ডলপাড়ার কালু উদ্দিনের ছেলে মিলন (১৮), ঠুঠাপাড়ার আফসার হোসেনের ছেলে সেনারুল (২৫), পশ্চিম চর পাঁকার বিশ রশিয়ার ফড়িৎ বিশ্বাসের ছেলে টিপু (২০)।

এছাড়া পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতরা হলেন, উপজেলার চককীক্তি ইউনিয়নের ডুবলি ভান্ডারের মৃত সলি মন্ডলের ছেলে মনিরুল ইসলাম মিনু (৬৫), চৌকা মনাকষার ইয়াসিন আলীর স্বামী ববিতা বেগম (৪০), সোনামসজিদ মির্জাপুরের মৃত মোজাহারের স্ত্রী সায়েরা বেগম (৭০), উজিরপুর বাবুপুর বিশ্বাসপাড়ার ইসমাইল মৌলভীর ছেলে বাশির আলী (১৫)। এদিকে চককীর্তি ইউনিয়নের লহালামারী এলাকায় সোহরাব আলী (৬৫) নামে এক পথচারী নিহত হন। নিহত ওই পথচারী একই এলাকার মৃত কান্তুর ছেলে। অন্যদিকে রানীবাড়ি চাঁদপুর এলাকার মহানন্দা নদীর তীর থেকে এক নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

জানা গেছে, গত ৪ মার্চ ওয়াহেদপুর সীমান্তে গভীর রাতে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী জঙ্গিপুর ক্যাম্প বিএসএফ সদস্যদের গুলিতে টিপু আলী প্রাণ হারান। এছাড়া গত ২ এপ্রিল মাসুদপুর সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী শোভাপুর ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যদের গুলিতে মিলনসহ সেনারুল নামে আরো একজন নিহত হন। সর্বশেষ ১৯ এপ্রিল মাসুদপুর সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বিশারত আলী বিশু নিহত হন।

এদিকে ২২ মার্চ চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ মহাসড়কের একাডেমি মোড়ে রাস্তা পারাপারের সময় মনিরুল ইসলাম মিনু ট্রাক চাপায় নিহত হন। গত ১১ এপ্রিল একই সড়কের কানসাট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সামনে রাস্তা পারাপারের সময় ট্রাক চাপায় ঘটনাস্থলেই নিহত হন সায়েরা বেগম।

অন্যদিকে ২৫ মার্চ মনাকষা বনকুল নামক স্থানে ট্রলির ধাক্কায় গুরুত্বর আহত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ববিতা বেগম। এরআগে ১১ মার্চ উজিরপুর সাত্তার মোড় এলাকায় বালুভর্তি ট্রাক্টর থেকে পড়ে প্রাণ হারান বাশির আলী।

এছাড়াও ৮ মার্চ চককীর্তি ইউনিয়নের লহালামারী এলাকায় পথচারী সোহরাব আলী নিহত হন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে