আদর্শ শিক্ষক সম্মাননা পাচ্ছেন ৩ শিক্ষাবিদ

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৫, ২০২৩; সময়: ১১:৩৫ am |
আদর্শ শিক্ষক সম্মাননা পাচ্ছেন ৩ শিক্ষাবিদ

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : এ বছর আদর্শ শিক্ষক হিসেবে মনোনীত হয়েছেন তিনজন শিক্ষাবিদ। আজ তাদের সম্মাননা দেওয়া হবে। তারা তিনজন হলেন- ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. অরুণ কুমার বসাক, প্রতিভা মুৎসুদ্দি ও অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ।

বুধবার (২৫ জানুয়ারি) এথিকস ক্লাব বাংলাদেশ-এর যুগপূর্তি, নৈতিকতা দিবসের আলোচনা, আদর্শ শিক্ষক সম্মাননা এবং প্রয়াত উপদেষ্টাদের স্মরণ অনুষ্ঠানে এ পুরস্কার তুলে দেওয়া হবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেবেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

অরুণ কুমার বসাক একজন পদার্থবিজ্ঞানী। তিনি বর্তমানে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগে ইমেরিটাস অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

তিনি বাংলাদেশে পদার্থ বিজ্ঞানের একমাত্র ইমেরিটাস অধ্যাপক। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সমাবর্তনে সমাবর্তন বক্তা ছিলেন তিনি।

প্রতিভা মুৎসুদ্দি দেশের একজন শিক্ষাবিদ ও ভাষা সংগ্রামী। তিনি নির্যাতিত নিপীড়িত পিছিয়ে পড়া নারীদের সামাজিক রাজনৈতিক আন্দোলন সংগ্রামেও বিভিন্নভাবে যুক্ত রয়েছেন।

শিক্ষাক্ষেত্রে অবদানের জন্য তিনি ২০০২ সালে বাংলাদেশ সরকার প্রদত্ত দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা একুশে পদক লাভ করেন। ২০১৭ সালে বাংলা একাডেমি থেকে সম্মানসূচক ফেলোশিপ পেয়েছিলেন তিনি।

আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ দেশের একজন শিক্ষাবিদ, সাহিত্যিক ও সমাজসংস্কারক। তিনি ষাটের দশকে একজন প্রতিশ্রুতিশীল কবি হিসেবে পরিচিতি পান।

সে সময়ে সমালোচক এবং সাহিত্য-সম্পাদক হিসেবেও তিনি অবদান রেখেছিলেন। তার জীবনের উল্লেখযোগ্য কীর্তি বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র, যা চল্লিশ বছর ধরে বাংলাদেশে ‘আলোকিত মানুষ’ তৈরির কাজে নিয়োজিত।

২০০৪ সালে তিনি রামোন ম্যাগসেসে পুরস্কার লাভ করেন। বাংলাদেশে অপ্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা বিস্তারে অবদানের জন্য বাংলাদেশ সরকার তাকে ২০০৫ সালে দেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা একুশে পদকে ভূষিত করে।

প্রবন্ধে অবদানের জন্য তিনি ২০১২ সালে বাংলা একাডেমি পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৭০-এর দশকে তিনি টিভি উপস্থাপক হিসেবে বিশেষ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে