নাটোরে উপকরণসহ ভেজাল গুড় জব্দ ব্যবসায়ীকে জরিমানা

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৯, ২০২৩; সময়: ১:৩২ pm |
নাটোরে উপকরণসহ ভেজাল গুড় জব্দ ব্যবসায়ীকে জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক, নাটোর : নাটোরের সিংড়া ও গুরুদাসপুরে অভিযান চালিয়ে ভেজাল গুড় তৈরী, সংরক্ষণ ও বিক্রির অপরাধে ৬ গুড় ব্যবসায়ীকে ২,৬৪,০০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর এবং র‌্যাবের ভেজাল বিরোধী যৌথ অভিযান চালিয়ে ৬ ব্যবসায়ীকে জরিমানা করা হয়। বুধবার বিকেলে সাড়ে ১৫ হাজার কেজি ভেজাল গুড় ও গুড় তৈরির উপকরণ ৩৪ হাজার ভেজাল চিনির সিরাপ জব্দ করা হয়। বৃহস্পতিবার র‌্যাবের দেয়া প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়।

র‌্যাব-৫ নাটোর ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরহাদ হোসেন ও জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. মেহেদী হাসান তানভীর বলেন, নাটোরের গ্রামাঞ্চলে দীর্ঘদিন ধরে চিনির সিরাপ, ফিটকারি ও রংসহ নানা উপকরণ মিশিয়ে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে ভেজাল গুড় তৈরি, সংরক্ষণ ও বাজারজাত করা হচ্ছে।

বুধবার গোয়েন্দা তথ্যের ভিক্তিতে নাটোর জেলার গুরুদাসপুর উপজেলার কুমারখালী এবং সিংড়া উপজেলার চকবলরামপুর এলাকায় পৃথক দুটি বিশেষ ভেজাল বিরোধী যৌথ অভিযান চালায় র‌্যাব ও জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

এ সময় গুরুদাসপুরের মেসার্স ভাই ভাই ট্রেডার্সে মালিক আব্দুল হান্নান শেখকে ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা, সিংড়ার সোহেল গুড় ভান্ডারের মালিক সোহেল রানাকে ২০ হাজার টাকা, নুরুজ্জামান গুড় ভান্ডারের মালিক নুরুজ্জামান ইসলামকে ৩৫ হাজার টাকা, আজহারুল গুড় ভান্ডারের মালিক আজহারুল ইসলামকে ২৫ হাজার টাকা, তফিকুল গুড় ভান্ডারের মালিক তৌফিকুল ইসলামকে ১৫ হাজার টাকা এবং শাহিন গুড় ভান্ডারের মালিক শাহাদাৎ হোসেন শাহিনকে ১৯ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এসব কারখানা থেকে গুড় তৈরিতে ব্যবহৃত ৩৪ হাজার লিটার ভেজাল চিনির সিরাপ ও ১৫ হাজার ৫০০ কেজি ভেজাল গুড় জব্দ করা হয়। পরে জ্বদকৃত মালামাল বিনষ্ট করা হয়। অভিযানে র‌্যাব- ৫ নাটোর ক্যাম্পের কোম্পানী উপ-অধিনায়ক সহকারী পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলামও উপস্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে