স্বাস্থ্য সেবায় পোরশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অভুতপূর্ব অর্জন

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৪, ২০২৩; সময়: ১:০৫ pm |
স্বাস্থ্য সেবায় পোরশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অভুতপূর্ব অর্জন

নিজস্ব প্রতিবেদক, পোরশা : স্বাস্থ্য সেবায় অভুতপূর্ব অর্জন করেছে নওগাঁর পোরশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে । ফলে উপজেলার জনগণের স্বাস্থ্য সেবার মান যেমন বেড়েছে তেমনই বেড়েছে চিকিৎসা নেয়া রোগির সংখ্যা। বিভিন্ন রোগের চিকিৎসার জন্য উপজেলার জনসাধারন বাইরের জেলাগুলোর হাসপাতালে যাওয়ার প্রবনতা যেমন বেশী ছিল, সেখানে অনেকে এখন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসে সে সকল চিকিৎসাই নিচ্ছে। ৫০শয্যা বিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেটিতে নিয়মিত স্বাস্থ্য সেবায় প্রথমবারের মত বিভিন্ন বৈশিষ্টে বিভিন্ন নতুন সেবা কার্যক্রম চালু করা হয়েছে। যা থেকে প্রতিদিন কয়েকশ রোগি চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. তৌফিক রেজা জানান, তার সার্বিক তত্ত্বাবধানে এবং খাদ্যমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা সাধন চন্দ্র মজুমদারের সঠিক ও সুযোগ্য দিকনির্দেশনায় নতুন আঙ্গিকে সেবাগুলি চালু করা সম্ভব হয়েছে।

তিনি জানান, কিছু সেবা সম্পুর্ণ বিনামুল্যে ও সরকার নির্ধারিত ফি এর মাধ্যমে প্রদান করা হচ্ছে। এগুলোর মধ্যে ভায়াথসেন্টারে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত নার্স দ্বারা জরায়ুর ক্যান্সার নির্ণয়, প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত মেডিক্যাল কর্মকর্তাগণের মাধ্যমে নিয়মিত ভাবে আল্ট্রাসনোগ্রাম মেশিন এর মাধ্যমে আল্ট্রাসনোগ্রাফী সেবা প্রদান, প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত স্টাফ দ্বারা প্রথম বারের মতো বহুল প্রতিক্ষিত এক্স-রে সেবা প্রদান শুরু করা, রোগীর ডায়েটের সংখ্যা ৩১ থেকে ৫০ এ উন্নিতকরন, 12 Channel#ECG Nachine এর মাধ্যমে নিয়মিতভাবে ২৪ ঘন্টা ECG সেবা প্রদান, Automatic Analyzer মেশিনের মাধ্যমে  প্রথম বারের মতো Fasting lipid Profil, SGPT, S. Creatinine, S. Bilirubin, টেস্ট শুরু করা এবং স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর দর্শনীয় স্থানে, নামফলক, সুদীর্ঘ সিটিজেনস চার্টার, স্বাস্থ্য বার্তামুলক বিভিন্ন বিলবোর্ড ও উপজেলার মানচিত্র প্রতিস্থাপন করা হয়েছে। যা এর আগে ছিলনা। তবে এ সকল শুরুর পেছনে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সকল মেডিকেল অফিসার এবং হাসপাতালের সকল স্টাফ অক্লান্ত পরিশ্রম ও সহযোগিতা করেছেন বলে তিনি জানান।

তিনি আরো জানান, একজন জুনিয়র কনসালটেন্ট সার্জারী ডাক্তারের মাধ্যমে বিভিন্ন মেজর অপারেশন কার্যক্রম চালু করা হয়েছে। ইতোমধ্যে একজন মেডিসিন কনসালটেন্ট যোগদান করেছেন। এর ফলে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্ের এসে রোগিরা কোন কারনে চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হবেন না বলে তিনি জানান। তিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্ের এসে সকল ধরনের স্বাস্থ্যসেবা নেয়ার জন্য উপজেলাবাসীদের আহবান জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে