মোদির ৫ স্তরের নিরাপত্তা বলয় ভাঙলো ছোট বালক

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৩, ২০২৩; সময়: ৪:৫৬ pm |
মোদির ৫ স্তরের নিরাপত্তা বলয় ভাঙলো ছোট বালক

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির পাঁচ স্তরের বিশেষ নিরাপত্তা বলয় ভেঙে দিয়েছে ১১ বছরের এক বালক।

বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি) স্বামী বিবেকানন্দের জন্মবার্ষিকীতে জাতীয় যুব উৎসবের শুভ সূচনার জন্য কর্ণাটকের হুব্বালিতে রোড শোতে অংশ নিয়েছিলেন মোদি। সেই সময় একটি ছেলে ব্যারিকেড টপকে চলে যায় প্রধানমন্ত্রীর গাড়িবহরের একেবারে সামনে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি’র প্রতিবেদনে বলা হয়, রোড শোতে গাড়ির দরজা খুলে জনতার উদ্দেশে হাত নাড়াচ্ছিলেন মোদি।

হঠাৎ নিরাপত্তার বেড়া টপকে তার খুব কাছে চলে আসে একটি ছেলে। সে হাতে থাকা ফুলের মালা প্রধানমন্ত্রীর গলায় পরাতে যাচ্ছিল। কিন্তু তার আগেই নিরাপত্তাকর্মীরা ছেলেটিকে টেনে সরিয়ে দেয়।

অবশ্য পুরোপুরি নিরাশ হতে হয়নি ছেলেটিকে। তার মালা নিজ হাতে তুলে নেন মোদি।

ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীকে ঘিরে সাধারণত পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা থাকে। প্রথম বলয় অর্থাৎ প্রধানমন্ত্রীর সবচেয়ে কাছের বৃত্তের নিরাপত্তার দেখভাল করে ‘স্পেশাল প্রোটেকশন গ্রুপ (এসপিজি)’।

দ্বিতীয় বৃত্তের নিরাপত্তার দেখভালের ভার প্রধানমন্ত্রী নিজস্ব নিরাপত্তারক্ষীদের উপর। এসপিজি কম্যান্ডোদের সঙ্গেই তাদেরও প্রশিক্ষণ হয়।

প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা বলয়ের তৃতীয় বৃত্তের দায়িত্ব ‘ন্যাশনাল সিকিউরিটি গার্ড’ (এনএসজি)-এর। এনএসজি কম্যান্ডোরা থাকেন দায়িত্বে।

নিরাপত্তা বেষ্টনীর চতুর্থ ধাপে থাকেন নিরাপত্তা প্রদানের জন্য নিয়োজিত বিশেষ কর্মীরা। এ ছাড়াও তাদের সঙ্গেই থাকেন প্রধানমন্ত্রী যে রাজ্যে সফরে যাচ্ছেন সেই রাজ্যের নিরাপত্তা আধিকারিকরা।

পঞ্চম তথা শেষ নিরাপত্তা বেষ্টনীতে থাকে গোয়েন্দা কুকুর, কম্যান্ডো ও পুলিশের নিরাপত্তা সম্পন্ন গাড়ি। সেখানেই থাকে জ্যামার গাড়িও। সব ক’টিতেই সংযুক্ত থাকে বিধ্বংসী অস্ত্রশস্ত্রও।

তবে এত কিছুর পরেও ছেলেটি কীভাবে প্রধানমন্ত্রীর এত কাছে পৌঁছালো তা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে পড়েছে তার গোটা নিরাপত্তা ব্যবস্থাই।

এর আগে গত বছরের ৫ জানুয়ারি নরেন্দ্র মোদি পাঞ্জাবে নির্বাচনী র্যালিতে অংশ নিতে যাওয়ার পথে একবার নিরাপত্তা বলয় বিঘ্নিত হওয়ার ঘটনা ঘটে। কৃষকদের বিক্ষোভের মুখে পড়ে তার গাড়িবহরকে একটি ফ্লাইওভারের উপর ২০ মিনিট অপেক্ষা করতে হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে