ব্রেকফাস্ট না করলে যেসব ক্ষতি হয়

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১১, ২০২৩; সময়: ১:৪০ pm |
ব্রেকফাস্ট না করলে যেসব ক্ষতি হয়

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য কোনো একবেলার বাদ দেওয়ার প্রবণতা অনেকের মধ্যেই দেখা যায়। কিন্তু এটি কি কার্যকরী? উত্তর হলো, একদমই নয়। এটি কার্যকরী তো নয়ই, সেইসঙ্গে অস্বাস্থ্যকরও।

বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই সকালের খাবার বাদ দিতে দেখা যায়। ব্যস্ততা ও নানা অযুহাতে সকালের খাবার এড়িয়ে যান অনেকেই। কিন্তু এই অভ্যাসেই লুকিয়ে আছে বিপদের আভাস। জেনে নিন ব্রেকফাস্ট না করলে শরীরের যেসব ক্ষতি হয়-

ওজন বেড়ে যায়

ওজন কমানোর জন্য ব্রেকফাস্ট বাদ দিচ্ছেন কিন্তু এই অভ্যাসই উল্টো আপনার ওজন বাড়িয়ে দিচ্ছে! কারণটা হলো, সকালে না খেয়ে থাকার ফলে দুপুরের আগেই আপনার অনেকটা ক্ষুধা লেগে যায়।

ফলে আপনি দুপুরের খাবারে অনেক বেশি খেয়ে ফেলেন। এছাড়াও একটু পর পর খাবার খাওয়ার ইচ্ছে হতে থাকে। যে কারণে শরীরে জমা হয় বাড়তি ক্যালোরি। ফলস্বরূপ বাড়ে ওজন।

ডায়াবেটিস দেখা দিতে পারে

সকালের খাবার বাদ দিয়ে ভাবছেন, শরীরের অনেক বড় উপকার করে ফেলেছেন। আসলে কিন্তু তা নয়। আপনি যদি নিয়মিত সকালের খাবার বাদ দিতে থাকেন তবে একটা সময় টাইপ-টু ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যেতে পারে।

কারণ নিয়মিত ব্রেকফাস্ট বাদ দিয়ে গেলে শরীরে ইনসুলিনের ভারসাম্য নষ্ট হয়। বিভিন্ন গবেষণায় উঠে এসেছে এমনই তথ্য।

মাইগ্রেন হতে পারে

যারা মাইগ্রেনের মতো সমস্যায় ভুগছেন তারা একটু খেয়াল করে দেখবেন কি, ব্রেকফাস্ট নিয়মিত খাওয়া হয় কি না? উত্তর যদি ‌‌‘না’ হয় তবে হতে পারে আপনার মাইগ্রেনের জন্য অন্যতম দায়ী এই সকালের খাবার না খাওয়ার অভ্যাস।

কারণ এই অভ্যাসের কারণে শরীরে পানির ঘাটতি দেখা দিতে পারে। সেখান থেকে হতে পারে মাইগ্রেন। তাই নিয়মিত সকালের খাবার খাওয়া ভীষণ জরুরি।

হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ে

বর্তমানে হৃদরোগে আক্রান্তের সংখ্যা অনেক বেড়ে চলেছে। এই রোগের ঝুঁকি আরও বেড়ে যায় যখন আপনি সকালের খাবার বাদ দেন।

কারণ ব্রেকফাস্ট বাদ দিলে ওবেসিটি, হাই ব্রাড সুগার, হাইপার টেনশন, হাই কোলেস্টেরলের প্রবণতা অনেকটাই বেড়ে যায়। সেখান থেকে দেখা দেয় হৃদরোগ।

মুড সুইং দেখা দিতে পারে

সকালের খাবার বাদ দিলে তা নানাভাবে আমাদের ক্ষতিগ্রস্ত করে। তার মধ্যে অন্যতম হলো এটি আমাদের মন ও মেজাজের ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে।

যে কারণে আপনার স্বভাব হয়ে উঠতে পারে খিটখিটে। আপনি অল্পতেই রেগে যেতে পারেন। শক্তির ঘাটতি দেখা দিতে পারে। অবসাদ ও ক্লান্তি হতে পারে সঙ্গী। সেইসঙ্গে কমে আসতে পারে স্মৃতিশক্তিও।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে