রাজশাহী মোটর বাইক চোর চক্রের তিন সদস্য গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: জানুয়ারি ৯, ২০২৩; সময়: ৩:৩৭ pm |
রাজশাহী মোটর বাইক চোর চক্রের তিন সদস্য গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীতে সংঘবদ্ধ মোটরসাইকেল চোর চক্রের তিন সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। দীর্ঘদিন ধরে তারা মোটরসাইকেলসহ বিভিন্ন মালামাল চুরি করে বিক্রি করে আসছিল।

শনিবার (৭ জানুয়ারি) বিকেল ৫টার দিকে নগরীর দক্ষিণ নওদাপাড়া বটতলা মোড় এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় দুইটি চোরাই মোটরসাইকেল ও দুইটি মোবাইল ফোন জব্দ করেছে নগরীর শাহ মখদুম থানা পুলিশ। রোববার (৮ জানুয়ারি) রাতে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরএমপি) মুখপাত্র ও অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার রফিকুল আলম এ তথ্য জানান।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- নগরীর এয়ারপোর্ট থানার বায়া ভোলাবাড়ীর রাকিব আলীর ছেলে রিফাত (১৯), বারইপাড়ার মৃত মাজেদের ছেলে রাসেল আহম্মেদ (১৯) ও মৃত আসাদুলের ছেলে উজ্জ্বল (২০)।

অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার রফিকুল আলম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার বিকেলে আরএমপির শাহ মখদুম থানা পুলিশের একটি টিম জানতে পারে, দক্ষিণ নওদাপাড়া বটতলা মোড়ে কতিপয় ব্যক্তি চোরাই মোটরসাইকেল বিক্রয় করার জন্য অবস্থান করছে। খবর পেয়ে পুলিশের এক টিম দক্ষিণ নওদাপাড়া বটতলা মোড় এলাকায় অভিযান চালায়। অভিযানে আসামি রিফাতকে একটি মোটরসাইকেলসহ গ্রেপ্তার করা হয়।

তিনি আরও জানান, আসামি রিফাতকে জিজ্ঞাসাবাদে সে জানায়, চোরাই মোটর সাইকেলটি তাকে রাসেল ও উজ্জ্বল বিক্রি করার জন্য দিয়েছে। আরেকটি চোরাই মোটরসাইকেল তারা বায়া বাজারের একটি বাসায় রেখেছেন।

রিফাতের দেওয়া তথ্যমতে শাহমখদুম থানার ওই টিম শনিবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে এয়ারপোর্ট থানার বায়া বাজারের ওই বাড়িতে অভিযান চালায়। এসময় একটি মোটরসাইকেলসহ আসামি রাসেল ও উজ্জ্বলকে গ্রেপ্তার করা হয়। আসামিদের দুটি মোবাইল ফোনও জব্দ করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা জানায়, সন্তু ও মোমিন চোরাই মোটরসাইকেল দুইটি বিক্রি করার জন্য তাদের দিয়েছিল। তারা দীর্ঘদিন ধরে সংঘবদ্ধ হয়ে মোটরসাইকেলসহ বিভিন্ন মালামাল চুরি করে বিক্রি করতো বলেও স্বীকার করে তারা।

এ ঘটনায় শাহমখদুম থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে এবং তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে