গাইবান্ধা-৫ আসনে পুনরায় উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু

প্রকাশিত: জানুয়ারি ৪, ২০২৩; সময়: ১১:০৪ am |
গাইবান্ধা-৫ আসনে পুনরায় উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : গাইবান্ধা-৫ (সাঘাটা-ফুলছড়ি) আসনের বাতিল হওয়া উপনির্বাচন পুনরায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে আজ ৪ ডিসেম্বর (বুধবার)। সকাল সাড়ে ৮টা থেকে শুরু হয়েছে ভোটগ্রহণ। যা বিরতিহীনভাবে বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত চলবে।

এরআগে মঙ্গলবার (৩ জানুয়ারি) দুপুর থেকে ফুলছড়ি ও সাঘাটা উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে কেন্দ্রগুলোতে ইভিএমসহ নির্বাচনি সরঞ্জামাদি পাঠানো হয়। এদিন ফুলছড়ি উপজেলার নাপিতেরহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের নির্বাচনের দায়িত্ব বিষয়ে ব্রিফিং করেন গাইবান্ধা পুলিশ সুপার কামাল হোসেন।

বাংলাদেশের ইতিহাসে এই প্রথম একটি সংসদীয় আসনের সবগুলো কেন্দ্রে সিসি ফুটেজ দেখে ভোটগ্রহণ বন্ধ হওয়া উপনির্বাচনের পুনরায় ভোটগ্রহণ হচ্ছে। সারাদেশে আলোচিত এ নির্বাচনে অনিয়ম ঠেকাতে এবারও ১৭টি ইউনিয়নের ১৪৫টি ভোটকেন্দ্রের সবগুলোতেই থাকছে সিসি ক্যামেরা। নির্বাচনের কাজে নিয়োজিত রয়েছেন বিপুল সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য।

এ ছাড়া নির্বাচনি মাঠে রয়েছে, র‌্যাবের ৮টি টিম, র‌্যাবের একটি বোম ডিসপোজাল ইউনিট, ৫ প্লাটুন বিজিবি, ৫টি স্ট্রাইকিং ফোর্স, ১৯ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, দুজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এবং পুলিশ ও আনসারের সমন্বয়ে ৬টি মোবাইল টিম।

দুই উপজেলার কেন্দ্রগুলোতে ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন নতুন নিয়োগ পাওয়া ১৪৫ জন প্রিসাইডিং অফিসার, ৯৫২ জন সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার ও ১ হাজার ৯০৪ জন পোলিং অফিসার। এই আসনের সাঘাটা ও ফুলছড়ি উপজেলার ১৪৫টি ভোট কেন্দ্রের ৯৫২টি বুথে ৩ লাখ ৩৯ হাজার ৪ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। এরমধ্যে নারী ভোটার ১ লাখ ৬৯ হাজার ৮৬২ জন ও পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৬৯ হাজার ১৪২ জন। দুই উপজেলায় সমতলে ১১৩টি ও চরাঞ্চলে ৩২টি ভোটকেন্দ্রে ভোটগ্রহণ করা হচ্ছে।

ভোটে ঢাকা অঞ্চলের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ফরিদুল ইসলাম রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করবেন। এ ছাড়া ফুলছড়ি উপজেলায় সহকারী রিটার্নিং অফিসারের দায়িত্ব পালন করবেন গাইবান্ধা জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আব্দুল মোত্তালিব ও সাঘাটা উপজেলায় নওগাঁ জেলার নির্বাচন কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম।

গাইবান্ধা-৫ আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী মাহমুদ হাসান রিপন নৌকা প্রতীক, জাতীয় পার্টির এ এইচ এম গোলাম শহীদ রঞ্জু লাঙল প্রতীক, বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রার্থী অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম কুলা প্রতীক ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সৈয়দ মাহবুবুর রহমান ট্রাক প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তবে আপেল প্রতীকের অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী নাহিদুজ্জামান নিশাদ ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন।

গত বছরের ২৩ জুলাই জাতীয় সংসদের প্রয়াত ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়ার মৃত্যুতে আসনটি শূন্য হয়। গত ১২ই অক্টোবর বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে গাইবান্ধা-৫ আসনের ভোট বাতিল করে নির্বাচন কমিশন। দুই দফা তদন্ত শেষে আজ বুধবার পুনরায় এই আসনে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে