পরীর সঙ্গে সম্পর্ক আর জোড়া লাগবে না: রাজ

প্রকাশিত: জানুয়ারি ৩, ২০২৩; সময়: ১১:০৯ am |
খবর > বিনোদন
পরীর সঙ্গে সম্পর্ক আর জোড়া লাগবে না: রাজ

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : এই তো গেল বছর জানুয়ারির কথা। পরীমণির সঙ্গে গোপন বিয়ে ও সন্তানের খবর যখন প্রকাশ্যে আসে তখন রাজ বলেছিলেন, ‘পরীমণি কখনও আমাকে ছেড়ে যাবে না, আমিও যাব না। আমাদের দুজনের কবরটাও একসঙ্গে হবে।’

কিন্তু এক বছর না যেতেই চিত্রনাট্য বদল। মৌখিক বিচ্ছেদ হয়েছে পরীমণি-রাজের। এখন কেবল আনুষ্ঠানিকতা বাকি। বিচ্ছেদের কারণ হিসেবে পরী সামনে এনেছেন শারীরিক নির্যাতনের কথা। তার দাবি, রাজ তাকে নিয়মিত মারধর করতেন। তাই বাধ্য হয়ে তার সংসার থেকে বেরিয়ে এসেছেন।

পরীর একের পর এক অভিযোগ নিয়ে মুখ খুলেছেন রাজ। তিনি বলেন, ‘আমি এখন চুপচাপ আছি। কিছু বলতে চাইছি না। এই পরিস্থিতিতে আমার এখন একা থাকা দরকার। পরে এসব ব্যাপারে কথা বলব।’

কিন্তু পরীমণির অভিযোগের জবাবে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করবেন কি না—তা জানতে চাইলে রাজ বলেন, ‘এখন চুপচাপ থাকতে চাই। আর ওর এসব আমি আটকাব না বা থামাব না। পরী এখন যা করছে বা তার যা মন চায় করুক। সে যা করছে, হয়তো তার সে অধিকার আছে।’

এক্ষেত্রে আত্মপক্ষ সমর্থন করতে চান না রাজ। কেউ ভুল বুঝলে তার কিছু করার নেই বলে জানালেন। তবে তার দাবি, তিনি কোনো ভুল করেননি।

পরী-রাজের সম্পর্ক যে আর টিকছে না-সেটিও স্পষ্ট করেন রাজ। সম্পর্ক জোড়া লাগবে কি না—এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি স্পষ্ট বলেন, ‘না, আর হবে না’।

রাজ-পরীমণির দাম্পত্য জীবনের কলহ সামনে আসে শুক্রবার (৩০ ডিসেম্বর) দিবাগত রাতে। পরীমণি ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন, ‘হ্যাপি থার্টি ফার্স্ট এভরিওয়ান! আমি আজ রাজকে আমার জীবন থেকে ছুটি দিয়ে দিলাম এবং নিজেকেও মুক্ত করলাম একটা অসুস্থ সম্পর্ক থেকে।’

তারপর শনিবার রাতে পরীমণি জানান, অভিমান ভুলে রাজের কাছে ফিরে গিয়েছেন। কিন্তু এর কয়েকঘণ্টা পর মধ্যরাতে ফেসবুকে রক্তাক্ত বিছানা ও কোলবালিশের ছবি প্রকাশ করেন তিনি। ক্যাপশনে লেখেন, ‘হ্যাপি নিউ ইয়ার। আগামীকাল সংবাদ সম্মেলন, লোডিং…।’

গত বছরের ১৭ অক্টোবর গোপনে একে অপরকে জীবনসঙ্গী হিসেবে বিয়ে করেন পরীমণি ও রাজ। তবে খবরটি প্রকাশ্যে এনেছেন এ বছরের ১০ জানুয়ারি। একই দিন আরও ঘোষণা করেন, সন্তান আসছে তাদের ঘরে। এরপর ২২ জানুয়ারি পারিবারিক আয়োজনে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতাও করেন তারা। চলতি বছরের ১০ আগস্ট পরীমণির কোলজুড়ে আসে রাজ্য।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে