কল রেকর্ডিংয়ের ম্যাজিক ফিচার মিলবে যেসব ফোনে

প্রকাশিত: জানুয়ারি ৩, ২০২৩; সময়: ১০:১৮ am |
কল রেকর্ডিংয়ের ম্যাজিক ফিচার মিলবে যেসব ফোনে

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : অ্যানড্রয়েড ডেভেলপার গুগল ফোনে কল রেকর্ডিং অপশন বন্ধ করেছে। কেবলমাত্র হালনাগাদ অ্যানড্রয়েড ভার্সনের ফোনে এই সুবিধা মেলে। প্লে স্টোর থেকে থার্ড পার্টি কল রেকডিং অ্যাপস ডাউনলোড করে ব্যবহারের সুযোগও নেই। তাই ভরসা কিছু কিছু মডেলের স্মার্টফোন। যেসব ফোনে কল রেকর্ডিং ফিচার বিল্টইন আছে। এমনই কয়েকটি ফোন সম্পর্কে জানুন।

আইটেল আইটি ২১৬৩-

শুধুমাত্র কল রেকর্ড করার জন্য সস্তার ফোন কেনার কথা ভাবছেন? তাহলে আপনার প্রথম পছন্দ হতে পারে আইটেল আইটি ২১৬৩ মডেল। এই সস্তায় কি-প্যাড ফোন থেকে কল রেকর্ড করলে কেউ জানতে পারবেন না। ফোনটি কিনতে হাজার খানেক টাকা খরচ হবে।

এই ফিচার ফোনে রয়েছে ১.৮ ইঞ্চির ডিসপ্লে। ব্যাকআপের জন্য ১০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। হ্যান্ডসেটটিতে ২০০০ কনট্যাক্ট সেভ করা যাবে। এই ফোনে বাংলা সাপোর্ট করে।

আইটেল ভিশন ২-

আইটেলের অ্যানড্রয়েড ফোন ভিশন ২। এই ফোনেও কল রেকর্ডিং অ্যাপ বিল্টইন আছে। যা দিয়ে আরামসে কল রেকর্ডিং করা যাবে।

৬.৬ ইঞ্চি ডিসপ্লের সঙ্গে এই ফোনে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। কল রেকর্ডিংয়ের জন্য দ্বিতীয় ফোন কিনতে চাইলে এই ফোন আপনার জন্য আদর্শ হতে পারে।

টেকনো স্পার্ক ৭ প্রো- 

টেকনো স্পার্ক ৭ প্রো মডেলের অ্যানড্রয়েড ফোনে রয়েছে অটোমেটিক কল রেকর্ডিং ফিচার। অর্থাৎ সব ভয়েস কল নিজে থেকেই রেকর্ড করতে পারবে এই মডেল। ফোনের ডায়ালার অ্যাপ থেকে সেটিংস সিলেক্ট করে ‘অটো কল রেকর্ডিং’ ফিচার এনাবল করলে নিজে থেকেই কল রেকর্ড হওয়া শুরু হয়ে যাবে।

এই ফোনে রয়েছে ৬.৬ ইঞ্চির আইপিএস এলসিডি ডিসপ্লে। ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরার এই ফোনে রয়েছে ৪৮ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি সেন্সর। ব্যাকআপের জন্য ৫০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি দিয়েছে টেকনো।

কল রেকর্ডিংয়ে সতর্কতা-

কল কল রেকর্ডিংয়ের আগে ফোনের অপর প্রান্তের মানুষটির অনুমতি নেওয়া বাধ্যতামূলক। তাই ফোনের কল রেকর্ডারে সেই ফিচার না থাকলে নিজে জানিয়ে তবেই রেকর্ডিং শুরু করা উচিত।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে