ডিনস্ এ্যাওয়ার্ড পেলেন রাবির ৩৩ শিক্ষার্থী

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১৯, ২০২২; সময়: ২:৪৩ pm |
ডিনস্ এ্যাওয়ার্ড পেলেন রাবির ৩৩ শিক্ষার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাবি : ব্যবসা শিক্ষা অনুষদের ৩৩ জন শিক্ষার্থীকে ডিন’স অ্যাওয়ার্ড প্রদান করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ।

সোমবার (১৯ ডিসেম্বর) সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ সিনেট ভবনে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. গোলাম সাব্বির সাত্তার প্রধান অতিথি হিসেবে শিক্ষার্থীদের হাতে এ ডিন’স অ্যাওয়ার্ড তুলে দেন।

অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্তদের মধ্যে হিসাব ও তথ্য ব্যবস্থা বিভাগের ১২জন, ম্যানেজমেন্ট বিভাগে ৯জন, মার্কেটিং বিভাগে ৬জন, ফাইন্যান্স বিভাগে ৪জন, ব্যাংকিং এন্ড ইন্সুইরেন্স বিভাগের রয়েছেন ২ জন। এসময় শিক্ষার্থীদের হাতে ক্রেস্ট, সনদ ও নগদ পাঁচ হাজার টাকা তুলে দেওয়া হয়।

ফাইন্যান্স বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মোকছিদুল হকের সঞ্চালনায় উপাচার্য বলেন, ডিন’স এ্যাওয়ার্ড আন্তর্জাতিক শিক্ষাঙ্গনে এক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সিজিপিএ দিয়ে মান-পরিমাপ করা যায় না। শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, তোমাদের রাষ্ট্রীয় বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রেখে মেধার প্রমাণ দিতে হবে। সমাজের সব জায়গায় সমতা আনতে হবে।

ব্যবসা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. ফরিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে বিশেষ অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য এম হুমায়ুন কবির, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. অবাইদুর রহমান প্রামাণিক, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রণ দপ্তরের প্রধান আলমগীর হোসেন সরকার ও বিভিন্ন অনুষদের ডীনসহ শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা উপস্থিত ছিলেন।

বিশেষ অথিতির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. সুলতান-উল-ইসলাম বলেন, ডিন’স অ্যাওয়ার্ড পাওয়া অবশ্যই আনন্দের বিষয়। তার থেকে বড় আনন্দের বিষয় হলো তাদেরকে যেসব শিক্ষক এ পর্যন্ত নিয়ে এসেছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন এই মেধাবী শিক্ষার্থীদের হাতে পুরস্কার তুলে দিতে পেরে আনন্দিত। দেশের মানুষ হিসেবে দেশের উন্নয়নের বিষয়ে শিক্ষার্থীদেরই ভাবতে হবে। জনগণের ট্যাক্সে এ বিশ্ববিদ্যালয় চলছে তাদেরকে যেন আমরা ভুলে না যায় শিক্ষার্থীদের প্রতি সেই আহবান জানান এ অধ্যাপক।

বিশ্ববিদ্যালয়ের আরেক উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. হুমায়ুন কবির বলেন, যারা মেধার স্বাক্ষর রেখে এ পুরুস্কার পেয়েছে তাদেরকে অভিনন্দন জানাই। তাদের পিতা মাতাকে অভিনন্দন তাদের অক্লান্ত পরিশ্রমে তার সন্তান এ সফলতা অর্জন করেছে। যারা ডিন’স এ্যাওয়ার্ড পেয়েছে তাদের মেধাকে কাজে লাগিয়ে সমাজের উপকার করবে বলে আমি আশাবাদী। শিক্ষার্থীদেরকে পরিশ্রমের মাধ্যমে তাদের লক্ষে পৌঁছাতে হবে বলে জানান তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে