দুর্দান্ত ফাইনালে মেসিদের বিশ্বজয়ের রাতে কেঁপেছে গোটা বিশ্ব

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১৯, ২০২২; সময়: ৩:০৭ pm |
দুর্দান্ত ফাইনালে মেসিদের বিশ্বজয়ের রাতে কেঁপেছে গোটা বিশ্ব

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : শেষ হলো কাতার বিশ্বকাপের প্রায় এক মাসের লড়াই। প্রথমবারের মতো মধ্যপ্রাচ্যে আয়োজিত এই বিশ্বকাপে বহু ম্যাচ শেষ হয়েছে টানটান উত্তেজনায়। একদিকে গ্রুপ পর্ব থেকেই বাড়ি ফিরতে হয়েছে জার্মানির মতো দলকে। অন্যদিকে নকআউটে হেরে গিয়ে মন ভেঙেছে ব্রাজিল, ক্রোয়েশিয়ার মতো দলগুলোর।

আবার আফ্রিকার প্রথম দল হিসাবে সেমিফাইনালে উঠে সবাইকে অবাক করে দিয়েছে মরক্কো। শেষ পর্যন্ত কাপ উঠেছে আর্জেন্টিনা তথা লিওনেল মেসির হাতে। আর এর মধ্য দিয়ে ৩৬ বছর পর ফের বিশ্বকাপ জিতল আর্জেন্টিনা।

সবকিছু ছাপিয়ে সবার হৃদয় ছুঁয়েছে বিশ্বকাপ ফাইনালের টান টান উত্তেজনাকর ম্যাচ। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন বলছে, এই বিশ্বকাপ ফাইনাল ছিল এমন একটি খেলা যা বোঝার বা এটি বর্ণনা করার যেকোনো প্রচেষ্টা কম বলে মনে হবে।

যেভাবেই বর্ণনা করা হোক, এটি ছিল কেবল সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ ফাইনাল। কাতারের লুসাইল স্টেডিয়ামে আর্জেন্টিনার জার্সিতে নিজের ছবির পাশাপাশি টুইট করে উসাইন বোল্ট বলেছেন, ‘এখন পর্যন্ত সেরা বিশ্বকাপ ফাইনাল।’

ইংল্যান্ডের সাবেক আন্তর্জাতিক অ্যালান শিয়ারার বিবিসিকে বলেছেন, ‘আমরা এখানে শ্বাসকষ্টে ভুগছি! এটি কেবল একটি অবিশ্বাস্য ফাইনাল ছিল। এমন খেলা দেখতে এখানে উপস্থিত থাকতে পারা অনেক আনন্দের বিষয়। আমি কখনোই এই খেলার মতো কিছু দেখিনি এবং আমি মনে করি না যে, আমি এর মতো আর কখনোই কিছু আবার দেখতে পাব। এটা সত্যিই বিস্ময়কর ছিল।’

সিএনএন বলছে, মেসির পেনাল্টি এবং অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার প্রথমার্ধের গোলে স্বাভাবিক সময়ে ম্যাচ শেষ হয়ে যাবে বলে মনে করা হয়েছিল। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে ফরাসি স্ট্রাইকার এমবাপের কল্যাণে দুই মিনিটে দুটি গোল হজম করে আর্জেন্টিনা।

এরপর অতিরিক্ত সময়ের দ্বিতীয়ার্ধে মেসি গোল করলেও পরে পেনাল্টি কিক দিয়ে স্কোরে আবারও সমতা ফেরান এমবাপে। শেষ পর্যন্ত পেনাল্টি শুটআউটে ফ্রান্সকে ৪-২ গোলে হারিয়ে বিশ্বকাপ জয় করে আর্জেন্টিনা।

অবশ্য অতিরিক্ত সময়ে মেসির গোলে আর্জেন্টিনা ৩-২ গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর অভিনেতা রায়ান রেনল্ডস টুইট করেন, ‘আমার ঈশ্বর, #FIFAWorldCup. এই খেলা চমৎকার। এটাকে এখন বন্ধ করে দিলে আমার খারাপ লাগবে না।’

কিন্তু এমবাপে আবারও পেনাল্টির মাধ্যমে নিজের দলকে সমতায় ফেরান।

খেলার নাটকীয়তা আর উত্তেজনায় টেনিস তারকা সেরেনা উইলিয়ামস টুইট করেন, ‘ঠিক আছে, তবে আমি বিশ্বকাপ ফাইনাল দেখছি, যদি এই কারণে আমার হার্ট অ্যাটাক হয়।’

পেনাল্টি শুটআউটে বিজয়ী দল বেছে নেওয়ার আগে সাবেক আর্সেনাল মিডফিল্ডার সেসক ফ্যাব্রেগাস টুইট করেন, ‘কি অসাধারণ খেলা! কেউ এখনও কি মনে না করে যে এটি সর্বকালের সেরা খেলা…।’

নাটকীয়তার ভরা এই খেলায় পেনাল্টি শুটআউটে ফ্রান্সকে ৪-২ গোলে হারিয়ে বিশ্বকাপ জয় করে আর্জেন্টিনা। আর এর পরপরই হাজার হাজার আর্জেন্টাইন রাজধানী বুয়েনস আইরেসের রাস্তায় নেমে আসেন। তাদের উল্লাস-উচ্ছ্বাস ছিল বাঁধভাঙা।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া ছবিতে আর্জেন্টাইনদের উদযাপনের ঢেউয়ে বুয়েনস আইরেসের রাস্তাগুলো নীল এবং সাদা রঙে কার্যত ভেসে গেছে বলে দেখা যায়।

পরে টুইটারে দেওয়া এক বার্তায় আর্জেন্টিনার প্রেসিডেন্ট আলবার্তো ফার্নান্দেজ বলেন, ‘খেলোয়াড় এবং প্রযুক্তিগত দলকে ধন্যবাদ। তারা এমন উদাহরণ সৃষ্টি করেছে যে, আমাদের হাল ছেড়ে দেওয়া উচিত নয়, আমাদের মহান মানুষ এবং একটি দুর্দান্ত ভবিষ্যৎ আছে।’

পরে টুইটারে দেওয়া দ্বিতীয় বার্তায় ফার্নান্দেজ লিখেছেন: ‘সর্বদা একসাথে, সর্বদা ঐক্যবদ্ধ। আমরা বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন। অন্য কোনও কথা নেই।’

এমনকি আলবিসেলেস্তের দুর্দান্ত এই জয়ে দেশটির প্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলও অভিনন্দন পাঠিয়েছে।

ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট লুলা দা সিলভা আর্জেন্টিনার পতাকার একটি ইমোজির পাশাপাশি টুইট করে বলেছেন, ‘প্রতিবেশী আর্জেন্টিনার জয়ে খুশি। মেসির কাছ থেকে দুর্দান্ত খেলা পেয়েছি। তার এটি (বিশ্বকাপ) অনেক প্রাপ্য এবং ডি মারিয়াও ভালো খেলেছে। আর্জেন্টিনার খেলোয়াড়, কোচিং স্টাফ এবং আমার বন্ধু আলবার্তো ফার্নান্দেজকে অভিনন্দন।’

ইংল্যান্ডের সাবেক স্ট্রাইকার মাইকেল ওয়েন টুইট করেছেন: ‘অভিনন্দন আর্জেন্টিনা। অবিশ্বাস্য খেলা। নিশ্চয়ই সর্বকালের সেরা ফাইনাল? মেসি তার অবিশ্বাস্য ক্যারিয়ারে শীর্ষ প্রাপ্তি অর্জন করলেন। এমবাপেকে নিয়ে বলব, বিশ্বকাপ ফাইনালে হ্যাটট্রিক তবুও খালি হাতে বাড়ি যেতে হচ্ছে।’

ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ ফাইনাল খেলা সরাসরি উপভোগের জন্য কাতারে গিয়েছিলেন। টুটারে দেওয়া এক বার্তায় তিনি বলেছেন: ‘লেস ব্লেউস (ফরাসি ফুটবল দল) আমাদের স্বপ্ন দেখিয়েছে।’

ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী এলিসাবেথ বোর্নও বিশ্বকাপের ফাইনাল নিয়ে টুইট করেছেন। তিনি বলেছেন: ‘আপনাদের ধন্যবাদ লেস ব্লেউস! আমরা আপনার সকলের সাথে শেষ মুর্হর্ত পর্যন্ত উত্তেজনায় কেঁপেছি। এই যাত্রার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ, আমাদের স্বপ্ন দেখানোর জন্য আপনাদের ধন্যবাদ, এই ব্যতিক্রমী খেলার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে