খুনের ৫ দিন পর ছেলেকে নিয়ে থানায় হাজির মা

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১৭, ২০২২; সময়: ১:৪২ pm |
খুনের ৫ দিন পর ছেলেকে নিয়ে থানায় হাজির মা

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : সম্পত্তির লোভে ছেলের বেসবল ব্যাটের আঘাতে মা খুনের খবর প্রকাশ হয় সংবাদমাধ্যমে। কিন্তু খুনের খবর প্রকাশের পাঁচদিন পর ছেলেকে নিয়ে থানার হাজির হয়েছে মা নিজে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়, ভারতীয় টিভি অভিনেত্রী বীণা কাপুর খুনের খবর বের হয় ভারতীয় গণমাধ্যমে। এরপর তদন্তে নামে পুলিশ। কিন্তু ঘটনার পাঁচদিন পর ছেলের হাত ধরেই থানায় হাজির হন তিনি।

বীণা জানান, তিনি মরেননি, বেঁচে আছেন। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগও করেছেন বর্ষীয়ান এ অভিনেত্রী।

ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এএনআইকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী জানান, সত্যিই এক বীণা কাপুর খুন হয়েছেন, তবে তিনি সেই বীণা কাপুর নন।

নাম এবং পদবি এক হওয়ার জেরে এ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। নিজের অনুরাগী ও শুভাকাঙ্খীদের কোনোরকম গুজবে কান না দেওয়ার অনুরোধ জানান তিনি।

বীণা কাপুরের ছেলে জানান, তিনি সম্পত্তির লোভে মাকে খুন করেছেন, এমন রটনা শুনে রীতিমতো ভেঙে পড়েন। তবে মুম্বাই পুলিশ এ কঠিন সময়ে সবরকম সহযোগিতা করেছে। তাদের অভিযোগ জমা নেয়ার পাশাপাশি সবরকম সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছে পুলিশ।

বর্ষীয়ান অভিনেত্রী জানান, এ ঘটনার তাকে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত করে তুলেছে। কে বা কারা এ ভুয়া খবর রটিয়েছে তার সঠিক তদন্ত চান তিনি।

এর আগে ভারতীয় গণমাধ্যমসূত্রে জানা যায়, ছোট ছেলে শচীন কাপুরের কাছে থাকতেন বীণা কাপুর। অনেকদিন ধরে প্রায় ১২ কোটি টাকার সম্পত্তি নিয়ে মা বীণা কাপুরের সঙ্গে ছোট ছেলের ঝামেলা হচ্ছিল।

তার জেরে বেসবল ব্যাট দিয়ে ক্রমাগত পিটিয়ে নৃশংসভাবে হত্যা করেন তার ছোট ছেলে শচীন কাপুর। বীণার মৃত্যু নিশ্চিত করার পর প্লাস্টিকের ব্যাগে করে লাশ রায়গড়ের জঙ্গলের মাথেরান নদীতে ফেলে দেওয়া হয়।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এ ঘটনা প্রকাশ করেন বীণা কাপুরের সহ-অভিনেত্রী নীলু। এরপর থেকে বিনোদনজগতে শুরু হয় তোলপাড়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে