গুপ্তচরবৃত্তির কাজে টিকটক ব্যবহার করা যেতে পারে, শঙ্কা এফবিআই’র

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৪, ২০২২; সময়: ২:৪৮ pm |
গুপ্তচরবৃত্তির কাজে টিকটক ব্যবহার করা যেতে পারে, শঙ্কা এফবিআই’র

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : জনপ্রিয় ভিডিও-শেয়ারিং অ্যাপ টিকটক যুক্তরাষ্ট্রের জন্য ‘জাতীয় নিরাপত্তা উদ্বেগ’ বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (এফবিআই)-এর পরিচালক ক্রিস্টোফার রে। তার আশঙ্কা, গুপ্তচরবৃত্তি চালাতে এই অ্যাপটি ব্যবহার করা যেতে পারে।

রোববার (৪ ডিসেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এবং ওয়াশিংটন পোস্ট।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব মিশিগানে যান এফবিআই-এর পরিচালক ক্রিস্টোফার রে। সেখানে তিনি বলেন, ‘এই সকল জিনিস (টিকটক) এমন একটি সরকারের হাতে রয়েছে যারা আমাদের মূল্যবোধকে ধারণ করে না। ওই দেশটির একটি মিশন রয়েছে যা যুক্তরাষ্ট্রের সর্বোত্তম স্বার্থের সঙ্গে বিরাট বিরোধপূর্ণ। আর এ কারণে আমাদের উদ্বিগ্ন হওয়া উচিত।’

গত মাসে এফবিআই পরিচালক একই ধরনের ঝুঁকি নিয়ে আলোচনা করেছিলেন। তখন তিনি দাবি করেছিলেন, চীনা সরকার ব্যবহারকারীদের ডিভাইসগুলোকে প্রভাবিত বা নিয়ন্ত্রণ করতে ভিডিও-শেয়ারিং এই অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারে।

সেসময় মার্কিন আইন প্রণেতাদের ক্রিস্টোফার রে বলেন, ‘এমন সম্ভাবনাও রয়েছে যে, চীন সরকার লাখ লাখ ব্যবহারকারীর তথ্য সংগ্রহ করতে (টিকটক) ব্যবহার করতে পারে, যা প্রভাব বিস্তারের মতো কর্মকাণ্ডের জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে।’

টাইম ম্যাগাজিনের তথ্য অনুযায়ী, চীনের জাতীয় নিরাপত্তা আইন অনুযায়ী দেশে পরিচালিত বেসরকারি সংস্থাগুলোর কাছে চাইলে চীনা সরকারকে তাদের তথ্য সরবরাহ করতে হবে। ছয় বছর আগে টিকটক চালু হওয়ার পর থেকে অ্যাপটির নিরাপত্তা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের বরাবরই উদ্বেগ রয়েছে। এছাড়া ২০১৮ সালে যুক্তরাষ্ট্রে সর্বাধিক ডাউনলোড করা অ্যাপ ছিল টিকটক।

তবে চীনা এই সংস্থাটি মার্কিন সিনেটরদের কাছে বারবারই জানিয়েছে যে, বেইজিংয়ের ক্ষমতাসীন চীনা কমিউনিস্ট পার্টি (সিসিপি) কখনোই আমেরিকান ব্যবহারকারীদের তথ্য তাদের কাছে চায়নি।

সংস্থাটি আরও জানিয়েছে, ‘আমরা সিসিপিকে মার্কিন ব্যবহারকারীর ডেটা সরবরাহ করিনি। এমনকি যদি তথ্য দিতে বলাও হয় তারপরও আমরা সেটি দেব না।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে