পবায় বিবাদমান জমিতে থাকা বাড়ি ভাঙার অভিযোগ

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৮, ২০২২; সময়: ৬:২৫ pm |
পবায় বিবাদমান জমিতে থাকা বাড়ি ভাঙার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীর পবায় বিবাদমান জমিতে থাকা বাড়ি ভাঙ্গার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের ভাগিদারদের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার উপজেলা দামকুড়া ইউনিয়নের আলোকছত্র গ্রামে। এমনকি বাড়ি ভাঙ্গার নোটিশ প্রদান করা হয়নি বলে জানিয়েছেন মালিক আব্দুল সালেক।

জানা যায়, মো. সোলাইমান, আইয়ুব আলী, তৌহিদুর রহমান ও ওহিদুর রহমান চার ভাই। তাদের পিতা মারা যাওয়ার পর স্থানীয় শালিসদারদের সহযোগিতায় মৌখিক আপোষ বন্টনের মুলে সম্পত্তি ভোগ দখল করে আসছিলেন। পরে এসব সম্পত্তির বিষয়ে সোলাইমানের অংশিদার তৌহিদের অংশিদারদের সাথে মামলায় জড়ান। বিজ্ঞ আদালত সোলাইমানের অংশিদারদের পক্ষে রায় দেন। কিন্তু সোলাইমানের অংশিদারদারগণ আইয়ুব আলীর অংশিদার আব্দুল সালেকের বাড়ি রোববার জোরপূর্বক ভেঙ্গে দেয়। এ অংশিদারদের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

ভূক্তভোগি আব্দুল সালেক জানান, ‘বিবাদমান জমি হলেও আমাদের সাথে তাদের মামলা নেয়। এছাড়াও আমার ভোগদখলিয় জমির খাজনা খারিজ হাল নাগাদ আছে। তারা বাড়ির মালামাল সরিয়ে নেওয়ার সময়ও দেয় নাই। তারা জোরপূর্বক বাড়ি ভাঙ্গে ফেলায় নিম্ন প্রায় ১৫ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। আমাদের বিনিময়ের জমি ওদের মধ্যে থাকলেও বের করে দিচ্ছে না। অথচ আদালতে মামলা করে একদিকে হয়রানি এবং অন্যদিকে জমি জবরদখল করে নিচ্ছে’।

তিনি আরো জানান, ‘সোলাইমানের অংশিদার ‘হানুফা দিগররা এরআগে এক মামলার আরজিতে উল্লেখ করেছেন বিবাদিগণ আরএস ১৩২ দাগের অংশের পরিবর্তে আমরা আরএস ১৩১, ১৩৪, ১৩৩ ও ১৩৫ দাগে সম্পত্তি প্রাপ্ত হয়েছি। অথচ আমার বাড়ি ১৩১, ১৩৪, ১৩৩ ও ১৩৫ দাগে থাকলেও অবৈধভাবে ভেঙ্গে ফেলেছে’।

বাড়ি ভাঙ্গার বিষয়ে রাজশাহী জেলা জজ আদালত নেজারত বিভাগের নায়েব নাজির মো. গোলাম মুর্শেদ বলেন, বিজ্ঞ আদালতের আদেশক্রমে ডিগ্রীদার সোলাইমানের অংশিদারদের জমি বুঝিয়ে দেয়া হচ্ছে। কোর্টের জারিকারক বলেন, দেওয়ানি আদালতে মামলার জন্য কোন নোটিশের প্রয়োজন নাই।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে