বাঘা পৌর নির্বাচনে প্রার্থী নির্ধারণে পৌর আ.লীগের বর্ধিত সভা

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৫, ২০২২; সময়: ৯:১২ pm |
বাঘা পৌর নির্বাচনে প্রার্থী নির্ধারণে পৌর আ.লীগের বর্ধিত সভা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঘা : রাজশাহীর বাঘা পৌরসভা নির্বাচনে সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থীদের তালিকা প্রণয়নে শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) বর্ধিত সভা করেছে বাঘা পৌর আওয়ামী লীগ।

বিকেল সাড়ে ৩টায় শুরু হয়ে সভা শেষ হয় মাগরিব নামাজের আগে। পৌর আ’লীগের সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস সরকারের সভাপতিত্বে আড়ানির চক সিংগা গ্রামে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি(বাঘা-চারঘাট)।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২০০৮ সালে নৌকা প্রতীকে সর্বোচ্চ ভোট দিয়ে আমাকে বিজয়ী করেছিলেন। তার পর থেকে নির্বাচিত হয়ে দেশের ও জনকল্যাণে কাজ করছি। এসময় দলীয় নেতাদেরও মূল্যায়ন কম করিনি। পৌর নির্বাচনেও নৌকা প্রতীকের প্রার্থীকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করার আহ্বান জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমাদের লক্ষ্য হবে,গনপ্রজাতন্ত্রী সরকারের প্রধানমন্ত্রী তথা- দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালি করে আওয়ামীলীগের কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা। তাই সকলকেই দলীয় শৃঙ্খলা মেনে চলতে হবে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুলের সঞ্চালনায় উক্ত সভায় মেয়র পদে দলীয় প্রার্থী হতে চান,এমন ব্যক্তিদের নাম জানতে চাইলে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশা করেন ৫জন। এরা হলেন-জেলা আ’লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি আমানুল হাসান দুদু,জেলা আ’লীগের সদস্য ও সাবেক মেয়র আক্কাছ আলী, পৌর আ’লীগের সাধারন সম্পাদক মামুন হোসেন, উপজেলা মহিলা আ’লীগের সভাপতি ও সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ফাতেমা মাসুদ লতা, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক ও পৌর সভার প্যানেল মেয়র শাহিনুর রহমান পিন্টু ।

এদের মধ্যে আক্কাছ আলীর অনুপস্থিতিতে তার পক্ষে নাম প্রস্তাব করেন পৌরসভার ১নম্বর ওয়ার্ডের সেক্রেটারি সেলিম আহমেদ। অন্য ৪জন সরাসরি নিজের নাম বলেন । তবে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে তালিকায় নাম থাকছেনা আক্কাছ আলীর।

সাময়িকভাবে অব্যাহতি দেওয়া আক্কাছ আলীকে দলীয় প্রার্থী না করার ঘোষনা দিয়ে জেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলফুর রহমান বলেন, সাধারণ নেতাকর্মী, যারা সুদিন-দুর্দিনে দলকে আগলে রেখেছেন, তাদের মতামত দেয়ার অধিকার আছে। তবে আক্কাছ আলীর নাম বাদ দিয়ে কেন্দ্রে বা মনোনয়ন বোর্ডে পাঠানো হবে বলে জানান তিনি।

জেলা আ’লীগের সহ সভাপতি সাইফুল ইসলাম দুলাল বলেন, উপজেলা আ’লীগের সম্মেলনে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে আক্কাছ আলীকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়ার সুপারিশ করেছে জেলা আ’লীগ। আওয়ামী লীগ নিয়মতান্ত্রিক রাজনৈতিক সংগঠন। কোনো নির্বাচনের প্রার্থী নির্ধারণে তৃণমূলের নেতাকর্মীদের মতামতকে শ্রদ্ধা জানাতে দল থেকে এ রীতি পালন করে আসছে ।

তবে প্রার্থী তালিকায় আক্কাছ আলীর নাম আসলেও দলীয় মনোনয়ন না দেওয়ারও সুপারিশ করা হবে। যদিও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে মনোনয়ন বোর্ড। তারপরও সাংগঠনিক নিয়ম অনুযায়ী নির্বাচন সংশ্লিষ্ট দলীয় ইউনিট থেকে প্রার্থীদের একটি তালিকা পাঠাতে হয়। কেন্দ্রীয় মনোনয়ন বোর্ড দলের জন্য যা মঙ্গলজনক হয়, তেমন সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত করবেন। এদিকে চমকপ্রদ কোনো সিদ্ধান্ত আসতে পারে কি-না,সে বিষয়টি নিয়েও ভাবছেন কেউ কেউ।

আক্কাছ আলী বলেন, অব্যাহতির কোন চিঠি পাননি। সভায় তাকে ডাকা হয়নি। পৌর আ’লীগের সাধারন সম্পাদক মামুন হোসেন বলেন,যেহেতু তার বিরুদ্ধে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ আছে, তাই সভায় তাকে ডাকা হয়নি। সবশেষ তফসিল ঘোষণার পর গণসংযোগে নেমেছেন মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশিরা। সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে আসছেন তারা।

তফসিল অনুযায়ী, আগামী ২৯ ডিসেম্বর ভোট গ্রহণ হবে। মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ১ ডিসেম্বর, যাচাই-বাছাই ৩ ডিসেম্বর, প্রার্থীতা প্রত্যাহার ১০ ডিসেম্বর।

পৌর নির্বাচনে সহকারি রির্টানিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন অফিসার মুজিবুল আলম জানান,সকাল সাড়ে ৮টা থেকে বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোট গ্রহণ চলবে। এবার ভোট হবে ইভিএমে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে