দুর্গাপুর পৌরসভার উপ-নির্বাচনে শেষ সময়ে ব্যস্ত মেয়র প্রার্থীরা

প্রকাশিত: নভেম্বর ১৩, ২০২২; সময়: ১০:১৩ am |
দুর্গাপুর পৌরসভার উপ-নির্বাচনে শেষ সময়ে ব্যস্ত মেয়র প্রার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, দুর্গাপুর: আর মাত্র দু’দিন বাদেই অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে রাজশাহীর দুর্গাপুর পৌরসভার মেয়র পদে উপ-নির্বাচন। বর্তমান ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী ছাড়াও বিএনপির দুই নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন এই নির্বাচনে।

স্বল্প সময় দিয়ে তফসিল ঘোষণা করায় অত্যন্ত তাড়াহুড়োর মধ্যে রয়েছেন প্রার্থীরা। তাই শেষ সময়ে নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে গণসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন মেয়র পদের প্রার্থীরা।

শনিবার (১২ নভেম্বর) দুপুরের পর থেকে পৌর এলাকার সিংগা, চুনিয়াপাড়া সহ বিভিন্ন পাড়া-মহল্লা ও হাট-বাজারে গণসংযোগ করতে দেখা গেছে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সাজেদুর রহমান মিঠুকে। দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে তিনি নৌকা প্রতীকে ভোট প্রার্থনা করেছেন। পাশাপাশি আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতাদের কাছে দোয়া চেয়েছেন নবীন মেয়র প্রার্থী মিঠু। মিঠুর বাবা মরহুম তোফাজ্জল হোসেন ছিলেন দুর্গাপুর পৌরসভার মেয়র। বাবার অসম্পূর্ণ কাজগুলোকে বাস্তবায়ন করার অঙ্গীকার করেন মিঠু।

অপরদিকে, বিএনপির স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী জার্জিস হোসেন সোহেল দলের একাংশের নেতাকর্মীদের নিয়ে শনিবার দিনভর গণসংযোগ করেছেন। নিজ গ্রাম গুড়খাই সহ আশেপাশের এলাকায় গিয়ে জগ প্রতীকে ভোট প্রার্থনা করেছেন। ২০২১ সালের পৌর নির্বাচনে তিনি বিএনপির মনোনয়নে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন। এই নির্বাচনে বিএনপি আনুষ্ঠানিকভাবে অংশ না নেওয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বিএনপি নেতা সোহেল।

বিএনপির অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী মোশারফ হোসেনকে সিংগা বাজারে গণসংযোগ করতে দেখা গেছে। মোবাইল ফোন প্রতীকে ভোট প্রার্থনা করেছেন তিনি। পুরুষ নেতাকর্মীদের পাশাপাশি নারী কর্মীদের মাঠে নামিয়েছেন তিনি।

বিএনপির আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী জিয়াউল হক রতন প্রার্থীতা প্রত্যাহার না করলেও নির্বাচনী গণসংযোগ করছেন না তিনি।

বিএনপির একটি সূত্র বলছেন, জিয়াউল হক রতন প্রার্থীতা প্রত্যাহার না করলেও নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। তবে নিজ দলের কোনো প্রার্থীকে সমর্থন দিয়েছেন কিনা তা পরিস্কার করেননি রতন।

আগামী ১৬ নভেম্বর দুর্গাপুর পৌরসভার মেয়র পদে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এই নির্বাচনে ৯ টি ওয়ার্ডে মোট ২১ হাজার ১২৬ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার রয়েছে ১০ হাজার ৪৪৫ জন ও মহিলা ভোটার রয়েছে ১০ হাজার ৬৮১ জন। ১১টি ভোটকেন্দ্রের ৫৭টি বুথে ভোট গ্রহণ করা হবে। সবগুলো কেন্দ্রে ইভিএম ব্যবহার করা হবে বলে জানিয়েছেন ইসি।

প্রসঙ্গত; সর্বশেষ ২০২১ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি দুর্গাপুর পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে তৃতীয়বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হয়েছিলেন তোফাজ্জল হোসেন। গত ২১ আগস্ট চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকার একটি হাসপাতালে মেয়র তোফাজ্জল মৃত্যুবরণ করলে নির্বাচন কমিশন থেকে মেয়র পদটি শুন্য ঘোষণা করে গেজেট জারি করা হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে