প্রতারণায় পবিত্র কোরআন ব্যবহার, গ্রেপ্তার ৫

প্রকাশিত: নভেম্বর ১৩, ২০২২; সময়: ৯:৫৭ am |
প্রতারণায় পবিত্র কোরআন ব্যবহার, গ্রেপ্তার ৫

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : পবিত্র কোরআন শরীফ ছুঁয়ে শপথ করে বিশ্বাসযোগ্যতা অর্জনের মাধ্যমে অভিনব কায়দায় প্রতারণার ঘটনা ঘটছে। প্রতারকদের টার্গেট কোটিপতিরা। জমি বেচাকেনার কথা বলে তাদের টার্গেট করা হয়। প্রতারক চক্রের দুই নারী সদস্যসহ পাঁচ জন গ্রেপ্তার হয়েছে।

শনিবার দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ডিবি) মোহাম্মদ হারুন-অর-রশীদ। তিনি বলেন, গত ১১ নভেম্বর ঢাকার মিরপুর ও উত্তরা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। তারা হচ্ছে- প্রতারক চক্রের প্রধান কবির প্রধান ওরফে মিজান উকিল (৪৭), পিটু খান (৫৪), সাইফুল ইসলাম (২৭), কেয়া রহমান (৩০) ও সাদিয়া ইসলাম মৌ (৩০)। তাদের কাছে ৩টি ব্রিফকেস, ১টি লাগেজ, টাকার বান্ডেলের মত ৩৬টি বান্ডেল, ১২টি মোবাইল ফোন ও ২০টি মোবাইল সিম কার্ড পাওয়া গেছে।

গ্রেপ্তারদের বরাত দিয়ে ডিবি প্রধান জানান, চলতি বছরের ২০ সেপ্টেম্বর মো. লুৎফুর রহমান (৫৫) নামের এক ব্যক্তি বগুড়ার গ্রামের বাড়িতে পাকা বাড়ি নির্মাণ করছিলেন। এ সময় প্রতারক চক্রের এক সদস্য তাকে ভালো জমি কিনে দেয়ার অনুরোধ করে। কথাবার্তার একপর্যায়ে প্রতারক জানায় তার বস একজন শিল্পপতি। ঢাকায় তার নিজস্ব বাড়ি, ফ্ল্যাট, ক্লিনিক, মিল-কারখানা আছে।

বগুড়াতে তিনি একটি ভালো ক্লিনিক নির্মাণ করতে চান। এ ব্যাপারে বসের সঙ্গে কথা বলিয়ে দেয়। কথাবার্তার এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে সুসম্পর্ক তৈরি হয়। গত ২৪ সেপ্টেম্বর লুৎফুর রহমান বসের সঙ্গে দেখা করতে ঢাকায় আসেন। ব্যাপক আপ্যায়ন করা হয় তাকে। এক পর্যায়ে তারা কেউ কারো প্রতি বিশ্বাস ভঙ্গ করবে না বলে পবিত্র কোরআন শরীফ ছুঁয়ে শপথ করেন।

শুরু হয় তাদের মধ্যে এক কোটি টাকার ব্যবসায়িক লেনদেন।

ডিবি প্রধান ডিআইজি হারুন অর রশীদ বলেন, চুক্তি মোতাবেক গত ২৩ অক্টোবর লুৎফুর রহমান ৫ লাখ টাকা দেন। বাকি টাকা দেবেন এমন প্রতিশ্রম্নতি দিয়ে বগুড়ায় চলে আসেন। পরবর্তীতে তিনি প্রতারণার বিষয়টি বুঝতে পেরে উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা দায়ের করেন। সংবাদ সম্মেলনে ডিবির ওয়ারী বিভাগের উপকমিশনার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন, ডিসি মিডিয়া মো. ফারুক হোসেনসহ ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে