সিরাজগঞ্জের তাড়াশে ব্রীজের অভাবে ভোগান্তিতে গ্রামবাসী

প্রকাশিত: নভেম্বর ৭, ২০২২; সময়: ২:২১ pm |
সিরাজগঞ্জের তাড়াশে  ব্রীজের অভাবে ভোগান্তিতে গ্রামবাসী

নিজস্ব প্রতিবেদক, তাড়াশ : ব্রীজের অভাবে সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার হামকুড়িয়া খানপাড়া গ্রামের জনসাধারণ চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। বর্ষাকালে গ্রামবাসীর উদ্যোগে বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করা হলেও কৃষিপণ্য পরিবহনে গুনতে হয় অতিরিক্ত অর্থ।

চলনবিল অধ্যুষিত হাটিকুমরুল-বনপাড়া মহাসড়কের পাশে তাড়াশ উপজেলার মাগুড়া বিনোদ ইউনিয়নের এই গ্রামটিতে প্রায় ২০ হাজার কৃষক পরিবারের বসবাস। একটি সেতু না থাকার কারণে সড়কের সঙ্গে গ্রামটির যোগাযোগ আটকে আছে।

হামকুড়িয়া গ্রামের স্কুল শিক্ষক জিয়াউর রহমান জানান, বর্ষাকালে নিজেদের উদ্যোগে বাঁশের সাঁকো তৈরী করা হলেও বৃদ্ধ,  শিশু আর রোগী নিয়ে চলাচল খুবই ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ে। নৌপথে কৃষিপণ্য পরিবহনেও রয়েছে নানা ভোগান্তি। গ্রামটি ৭টি পাড়া নিয়ে গঠিত।

স্থানীয় কৃষক নজরুল ইসলাম জানান, বর্ষাকালে কৃষক, চাকুরীজীবী, ব্যবসায়ীসহ গ্রামের স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসায় অধ্যায়নরত শিক্ষার্থীরা বাঁশের তৈরি সাঁকো দিয়ে নদী পার হয়। যদি কোনো শিশুর পা সাঁকো থেকে সরে যায় তাহলেই ঘটতে পারে দুর্ঘটনা।

খানপাড়া গ্রামের বাসিন্দা জামাল উদ্দিন খন্দকার বলেন, তারা নিজেদের উদ্যোগে সাঁকোটি তৈরি করেছেন। গ্রামের দোকান ব্যবসায়ীদের বাজার থেকে পণ্য আনতে যাতায়াত খরচও বেশি পড়ে যায়। বর্ষাকালে সাঁকো পিচ্ছিল হওয়ার কারণে এটি পার হতে বেশ বেগ পেতে হয় গ্রামবাসীর।

তবে গ্রামবাসীদের  দাবি সরকারিভাবে একটি ব্রীজ করে দেওয়া হলে যাতায়াতসহ সকল প্রকার সমস্যার সমাধান হতো।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে