ডেঙ্গুতে নতুন উপসর্গ, মৃত্যু ১০০ ছাড়াল

প্রকাশিত: অক্টোবর ১৯, ২০২২; সময়: ৯:২৯ pm |
ডেঙ্গুতে নতুন উপসর্গ, মৃত্যু ১০০ ছাড়াল

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : গত এক দিনে সাত ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু হয়েছে। তাতে এই বছর এই রোগে মৃত্যুর সংখ্যা একশ’ ছাড়িয়ে গেল।

ডেঙ্গু রোগে বাংলাদেশে ২০১৯ সালে সবচেয়ে বেশি ১৬৪ জনের মৃত্যু হয়েছিল, ২০২১ সালে মারা যান ১০৫ জন। করোনাভাইরাসের দাপটের মধ্যে ২০২০ সালে ডেঙ্গুতে কারও মৃত্যুর খবর সরকারি নথিতে আসেনি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় সাত জনের মৃত্যুতে এই বছর মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল ১০৬। এর মধ্যে এক দিনে ৭ মৃত্যু এবছর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সংখ্যা। এর আগে গত ১৩ অক্টোবর একদিনে আটজনের মৃত্যুর তথ্য দিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

গত এক দিনে যারা মারা গেছেন, তারা সবাই ঢাকার। শুধু স্কয়ার হাসপাতালেই মৃত্যু হয়েছে ৫ জনের। ঢাকা শিশু হাসপাতালে একজন এবং শহীদ মনসুর আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

মশাবাহিত এই রোগে আক্রান্ত হয়ে গত এক দিনে ৮৬৪ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তাদের নিয়ে এবছর এই পর্যন্ত হাসপাতালে ভর্তি হলেন ২৭ হাজার ৮০২ জন।

রোগী ভর্তির তথ্য ঢাকার ৫২টি সরকারি, বেসরকারি হাসপাতাল এবং বিভিন্ন জেলার সিভিল সার্জন অফিস থেকে পাঠানো হয়। ডেঙ্গু আক্রান্ত হলেও হাসপাতালে ভর্তি হননি, এমন রোগীরা রয়ে যান এই হিসাবের বাইরে।

গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি রোগীর মধ্যে ৫৬৫ জন ঢাকার শহরের। ঢাকার বাইরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২৯৯ জন। ঢাকা মহানগরের বাইরে ভর্তি রোগীদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ৯৬ জন চট্টগ্রাম বিভাগের।

ঢাকা বিভাগের বিভিন্ন জেলায় ৫৮ জন, ময়মনসিংহ বিভাগে ১৩ জন, খুলনা বিভাগে ৪০ জন, রাজশাহী বিভাগে ৪৩ জন, বরিশাল বিভাগে ৪২ জন এবং সিলেট বিভাগে ৭ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী ভর্তি হয়েছে গত ২৪ ঘণ্টায়।

বর্তমানে সারাদেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ৩ হাজার ৩০৪ রোগী ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এর মধ্যে ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন ২ হাজার ২৪৭ জন। অন্যান্য বিভাগের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন এক হাজার ৫৭ জন।

সারাদেশে এ পর্যন্ত যে ১০৬ জন মানুষ ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন তাদের মধ্যে ৬২ জন ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে, একজনের মৃত্যু হয়েছে ঢাকা বিভাগের নরসিংদী জেলায়।

এছাড়া ময়মনসিংহ বিভাগে একজন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৩৫ জন, খুলনা বিভাগে ২ এবং বরিশাল বিভাগে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে। বর্ষাকাল এলেই ডেঙ্গু রোগের জীবাণুবাহী এইডিস মশার উৎপাত বাড়ে। এ সময় এই মশার দংশনে আক্রান্ত হয়ে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যাও বাড়ে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, অক্টোবরের প্রথম ১৯ দিনে ডেঙ্গু নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১১ হাজার ৭১০ জন।

জানুয়ারি মাসে ১২৬ জন, ফেব্রুয়ারি মাসে ২০ জন, মার্চে ২০ জন, এপ্রিল মাসে ২৩ জন, মে মাসে ১৬৩ জন, জুন মাসে ৭৩৭ জন, জুলাই মাসে ১ হাজার ৫৭১ জন, অগাস্ট মাসে ৩ হাজার ৫২১ জন এবং সেপ্টেম্বর মাসে ৯ হাজার ৯১১ জন রোগী ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

এ পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে যে ১০৬ জনের মৃত্যু হয়েছে তার মধ্যে ৫১ জনই মারা গেছেন অক্টোবরের ১৮ দিনে। এছাড়া জুন মাসে ১ জন, জুলাই মাসে ৯ জন, অগাস্ট মাসে ১১ জন এবং সেপ্টেম্বরে ৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছে এই রোগে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে