আচরণবিধি মানতে এবার এমপি আয়েনকে সর্তক করে চিঠি

প্রকাশিত: অক্টোবর ১, ২০২২; সময়: ১০:০৪ pm |
আচরণবিধি মানতে এবার এমপি আয়েনকে সর্তক করে চিঠি

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী জেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীর পক্ষে আয়োজিত সভায় অংশ নেয়ায় সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিনকে চিঠি দিয়েছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা আবদুল জলিল। শনিবার পাঠানো চিঠিতে তাকে নির্বাচনী আচরণবিধি যথাযথভাবে প্রতিপালনের অনুরোধ জানানো হয়েছে।

নির্বাচনী কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করায় এর আগে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন ও রাজশাহী-৫ (পুঠিয়া-দুর্গাপুর) আসনের সংসদ সদস্য মনসুর রহমানকেও আচরণবিধি যথাযথভাবে মেনে চলার জন্য চিঠি দিয়েছিলেন রিটার্নিং কর্মকর্তা। পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে আচরণবিধি ভঙ্গের বিষয়টি প্রতীয়মান হয়েছে বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়। মেয়র খায়রুজ্জামান লিটনকে ২৮ সেপ্টেম্বর ও সংসদ সদস্য মনসুর রহমানকে ২৯ সেপ্টেম্বর চিঠি দেওয়া হয়।

রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন শুক্রবার রাজশাহী নগরের ‘চৈতির বাগানে’ আয়োজিত মতবিনিময় সভায় অংশ নেন। ওই সভায় আওয়ামী লীগের দলীয় মনোননিত প্রার্থী রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল উপস্থিত ছিলেন।

এ সভার পরদিন শনিবার (১ অক্টোবর) সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিনকে চিঠি দিয়েছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা ও রাজশাহী জেলা প্রশাসক আবদুল জলিল। চিঠিতে বলা হয়েছে, স্থানীয় পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে প্রতীয়মান হয়েছে যে রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) সংসদ সদস্য মো. আয়েন উদ্দিন রাজশাহী জেলা পরিষদ নির্বাচনে একজন প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করেছেন। জেলা পরিষদ নির্বাচন আচরণ বিধিমালা ২০১৬ -এর বিধি ২(১৪) অনুসারে সরকারি সুবিধাভোগী অতি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি হিসেবে একজন সংসদ সদস্য কোনো প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা বা নির্বাচনী কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আয়েন উদ্দিন বলেন, তিনি এ রকম একটি চিঠি পেয়েছেন। চিঠিতে নির্বাচনী আচরণবিধি যথাযথ প্রতিপালনের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

রাজশাহী জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে চারজন প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল ও ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী আখতারুজ্জামান। এ ছাড়াও আফজাল হোসেন ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার ইকবাল নামের আরও দুজন স্বতন্ত্র প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী হওয়ায় গত ২৫ সেপ্টেম্বর রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণবিষয়ক সম্পাদক আখতারুজ্জামানকে দলীয় পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে