সুজানগরে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় শিক্ষককে পিটিয়ে আহত করল ছাত্র

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২২; সময়: ৮:৩৩ pm |
সুজানগরে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় শিক্ষককে পিটিয়ে আহত করল ছাত্র

এম এ আলিম রিপন, বিদ্যালয়ের মেয়ে শিক্ষার্থীদের ইভটিজিং এর প্রতিবাদ করায় পাবনার সুজানগরে আবু বক্কার সিদ্দিক(৩৮) নামে এক শিক্ষককে পিটিয়ে গুরুতর জখম করার অভিযোগ উঠেছে একই বিদ্যালয়ের এক ছাত্রসহ স্থানীয় কয়েকজন বখাটের বিরুদ্ধে। বর্তমানে ওই চিকিৎসক সুজানগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

আহত শিক্ষক উপজেলার সাগরকান্দি রিয়াজ উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের শরীরচর্চা শিক্ষক এবং সে উপজেলার সাতবাড়িয়া ইউনিয়নের উপেন্দ্রনগর গ্রামের মৃত মাজেদ আলীর ছেলে। আর অভিযুক্তরা হলেন একই বিদ্যালয়ের ১০ শ্রেণীর ছাত্র আশিক শেখ(১৫)। সে স্থানীয় গ্রামের গোপাল শেখের ছেলে। অভিযুক্ত অন্যরা হলেন একই গ্রামের মুক্তার সরদারের ছেলে ফারদিন সরদার(১৮), মুসাই ব্যাপারীর ছেলে ইমন ব্যাপারী ও রশিদ সরদারের ছেলে রিদয় সরদার লাটু।

ঘটনাটি ঘটে বৃহস্পতিবার সকাল পৌনে ১০টার দিকে সাগরকান্দি রিয়াজ উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয় চত্বরে। শিক্ষক আবু বক্কার সিদ্দিক জানান, বিদ্যালয় চলাকালীন ১০ শ্রেণীর ছাত্র আশিক শেখ বহিরাগত কিছু বখাটে ছেলেদের নিয়ে এসে মেয়ে শিক্ষার্থীদের প্রায়ই উত্যক্ত করতো। আমি এর প্রতিবাদ করায় এদিন সকাল পৌন ১০টার দিকে আমি বিদ্যালয়ে প্রবেশ করা মাত্রই ছাত্র আশিকের নেতৃত্বে কয়েকজন বখাটে ছেলে অতর্কিতভাবে আমাকে বাঁশের লাঠি ও লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে।

পরে বিদ্যালয়ের শিক্ষকেরা আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। আমি এর সুষ্ঠ বিচার চাই। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল হালিম জানান, এর আগেও ওই সকল বখাটেরা বিদ্যালয়ের মেয়েদের উত্যক্ত করায় আমরা অন্যান্য শিক্ষকেরা প্রতিবাদ করায় আমাদেরকেও অপমান করে। বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের ও উপজেলা শাখার সভাপতি মনসুর আলী এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে অভিযুক্তদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন ।

আমিনপুর থানার ওসি মো.রওশন আলী জানান, এখনো লিখিত অভিযোগ পাইনি। তবে পেলে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো.রওশন আলী জানান, এটি একটি ফৌজদারি অপরাধ। এদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে