বাগমারায় ভুমি অফিসের সেবাই খুশি সাধারন মানুষ

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২; সময়: ৮:৫০ pm |
বাগমারায় ভুমি অফিসের সেবাই খুশি সাধারন মানুষ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বাগমারা : অবশেষে ভুমি অফিসের কার্যক্রমের গতি ফিরেছে রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার ভুমি অফিস গুলোতে। শততম মজিববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে মাননীয় প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় দেশ ব্যাপী অসহায় ভুমিহীনদের খুঁজে বের করার মাধ্যমে তাদেরকে স্থায়ী ভাবে বসবাস করার জন্য কার্যক্রম শুরু করেছিল বাগমারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী কমিশনার (ভুমি) অফিসের কর্মকর্তাগন।

উপজেলা ভুমি অফিস সূত্রে জানা যায়, সরকারী নির্দেশ অনুসারে উপজেলা ব্যাপী ভুমিহীনদের স্থায়ী বসবাসের ব্যবস্থা করতে গিয়ে ভুমি অফিসের অন্যান্য কার্যকক্রমের স্থবিরতা দেখা দেয়। হয়রানীর শিকার হন উপজেলার শত শত ভুমি অফিসের সেবা নেয়া মানুষ গুলো। অনেকের কাজ না হওয়ায় মন খারাপ করে চলে যান বাড়িতে। দীর্ঘদিন পর উপজেলার ভুমি অফিস গুলোতে আবারো দ্রুত কার্যক্রম শুরু করেছেন সহকারী কমিশনার (ভুমি) মাহমাদুল হাসান। যার কারনে আর সাধারন মানুষকে হয়রানীর শিকার হতে হচ্ছে না বলে জানান স্থানীয় ভুমি অফিসে সেবা নিতে আসা সাধারন মানুষ ।

বর্তমান সময়ে উপজেলার ভুমি অফিস গুলোতে খারিজের কার্যক্রম গুলো চলছে দ্রুত গতিতে। সংসারে টাকার অভাব দেখা দিলেও খারিজের অভাবে অনেকেই তাদের জমিজমা ক্রয় বিক্রয় করতে পারছিল না। এখন আর খারিজের তেমন কোন সমস্যা না থাকায় দ্রুত কাজ গুলো করছে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) অফিসসহ ইউনিয়ন ভুমি গুলোর কর্মকর্তারা। জমি খারিজের সরকারী নির্দেশনা ২৮ কার্য দিবস থাকলেও ভুমিহীনদের কাজ করার কারনে খারিজের কাজ করতে পারেনি উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) মাহমাদুল হাসান। ভুমিহীনদের কাজ শেষ হওয়ার পর পরই তিনি ভুমি সেবার কাজ গুলো শুরু করেছেন। যার কারনেই ভুমি অফিসের কাজ গুলোর গতি লক্ষ করা গেছে।

দিনের পর দিন ভুমি সেবা না পাওয়ায় সাধারন মানুষের মধ্যে কৌতুহলের সৃষ্টি হয়েছিল। বর্তমানে কাজের গতি ফিরায় মানুষ এখন ভুমি অফিসের সেবার জন্য এগিয়ে আসছেন। দ্রুত সেবা প্রদান করায় সহকারী কমিশনার (ভুমি) মাহমাদুল হাসানকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন সেবা নিতে আসা উপজেলার গোয়ালকান্দি ইউনিয়নের মকবুল হোসেন, হাবিবুর রহমান, গোবিন্দপাড়া ইউনিয়নের আব্দুল করিম ও হাতেম আলী। তারা সহকারী কমিশনার (ভুমি)’র এমন কর্মকান্ডের জন্য সাধুবাদ জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে বাগমারা উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভুমি) মাহমাদুল হাসান জানান, সরকারী নির্দেশ অনুসারে কাজ করতে গেলে সেবা নেয়া মানুষ গুলোর সামান্যতম সমস্যা হতে পারে ? ধর্য ধরলে অল্প সময়ের মধ্যে সেবা নেয়া মানুষ গুলোর সমস্যা সমাধান করা সম্ভব হবে। দীর্ঘদিন সহকারী কমিশনারের পদটি শূণ্য থাকায় খারিজসহ ভুমি অফিসের কিছু কিছু কাজের সামান্য ব্যাঘাত ঘটেছিল। বর্তমানে এখন ভুমি অফিসে সেবা নিতে আসা সাধারন মুনষ গুলোর কোন সমস্যা থাকবে না বলে তিনি জানিয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে