ইউক্রেনের জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হলো জাপোরিঝিয়া বিদ্যুৎকেন্দ্র

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২২; সময়: ৩:৪১ pm |
ইউক্রেনের জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হলো জাপোরিঝিয়া বিদ্যুৎকেন্দ্র

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ইউক্রেনের জাপোরিঝিয়া পারমাণবিক কেন্দ্রটি পুনরায় দেশটির জাতীয় গ্রিডে সংযুক্ত করা হয়েছে। জাতিসংঘের পরমাণু সংস্থা (আইএইএ) শনিবার এই তথ্য নিশ্চিত করেছে। অবশ্য সংস্থাটি বলেছে, গ্রিড থেকে সংযোগ বিচ্ছিন্ন থাকায় কেন্দ্রটির ঝুঁকি আরও বেড়েছে।

রাশিয়া ও ইউক্রেনের হামলা-পাল্টা হামলার কারণে সেপ্টেম্বর থেকে রাশিয়ান-অধিকৃত এই প্লান্টটি ইউক্রেনের জাতীয় গ্রিড থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে।

আইএইএ বলেছে, ‘পুনরুদ্ধার করা ৭৫০ কিলোভোল্ট (কেভি) লাইনটি এখন ইউরোপের বৃহত্তম পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র। চুল্লি শীতলকরণ এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ফাংশনগুলোর জন্য প্রয়োজনীয় বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হচ্ছে।’

গ্রিড থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার পর স্টেশনটি প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিচালনার জন্য তার নিজস্ব বিদ্যুৎ সরবরাহের ওপর নির্ভর করছিল। প্লান্টের অভ্যন্তরীণ শক্তি ফুরিয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কাও করছিলেন বিশেষজ্ঞরা।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে বিশেষ সামরিক অভিযান শুরুর ঘোষণা দেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এই ঘোষণার দু’দিন আগে ইউক্রেনের রুশ বিচ্ছিন্নতাবাদী নিয়ন্ত্রিত দুই অঞ্চল দনেতস্ক ও লুহানস্ককে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেন তিনি।

এরপর গত মার্চের শুরুতে যুদ্ধের প্রথম দিকেই রাশিয়ার সামরিক বাহিনী জাপোরিঝিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎ স্থাপনার নিয়ন্ত্রণ নেয়। যদিও এই স্থাপনা এখনও ইউক্রেনীয় প্রকৌশলীরা পরিচালনা করছেন। এরপর গত আগস্ট মাসে বেশ কয়েক দফায় ইউরোপের বৃহত্তম পারমাণবিক এই বিদ্যুৎকেন্দ্রে হামলা-পাল্টা হামলার ঘটনা ঘটে।

সেসময় এসব হামলার জন্য ইউক্রেন রাশিয়াকে দায়ী করলেও হামলার দায় পাল্টা ইউক্রেনের ঘাড়েও চাপায় মস্কো। আর এতে করে সেখানে পারমাণবিক বিপর্যয়ের আশঙ্কা দেখা দেয়। পরে সেপ্টেম্বরের শুরুতে আইএইএ বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি পরিদর্শন করে।

পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের জন্য আইএইএ টিমের বেশ কয়েকজন সদস্য স্থায়ী ভিত্তিতে প্লান্ট অঞ্চলের ভেতরে অবস্থান করছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে