সাবান, শ্যাম্পু, টুথপেস্টের দাম খতিয়ে দেখা হবে

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৮, ২০২২; সময়: ১০:৫১ am |
সাবান, শ্যাম্পু, টুথপেস্টের দাম খতিয়ে দেখা হবে

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : সুগন্ধি সাবান, শ্যাম্পু, ডিটারজেন্ট পাউডার ও টুথপেস্টের মতো অতি প্রয়োজনীয় গৃহস্থালি পণ্যগুলোর দাম বাড়ানোর যৌক্তিকতা খতিয়ে দেখবে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

এ জন্য সংস্থাটি ইনস্টিটিউট অব কস্ট অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট অ্যাকাউনটেন্টস অব বাংলাদেশ (আইসিএমএবি) ও বাংলাদেশ ট্রেড অ্যান্ড টেরিফ কমিশনকে সঙ্গে নিয়ে একটি কমিটি গঠন করবে।

কমিটি এসব পণ্য উৎপাদন ও সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর কারখানা পরিদর্শন, কাঁচামালের আমদানি ব্যয়, উৎপাদন ব্যয় এবং উৎপাদিত পণ্যের বর্তমান বাজারমূল্য যাচাই করবে।

বুধবার রাজধানীর কারওয়ান বাজারে অধিদপ্তর আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন সংস্থাটির মহাপরিচালক এএইচএম সফিকুজ্জামান। তিনি বলেন, বর্তমানে বিভিন্ন পণ্যের চড়া মূল্যে ভোক্তারা কষ্টে আছে। এমন কঠিন সময়ে সাবান-শ্যাম্পু, পেস্ট জাতীয় পণ্যের দাম বাড়ানো হয়েছে।

বর্তমানে বিশ্ববাজারে এসব পণ্যের কাঁচামালের দাম কমছে। তবুও বেশি মুনাফা করতে চায় স্বনামধন্য কোম্পানিগুলো। তিনি বলেন, দাম বাড়াতে হলে তার পক্ষে যৌক্তিক কারণ দেখাতে হবে।

এ জন্য কোম্পানিগুলোর কারখানা পরিদর্শন করা হবে। কত দামে কাঁচামাল আমদানি হচ্ছে, কোন পণ্য উৎপাদনে কত খরচ হচ্ছে, সেগুলো বাজারে কী দামে বিক্রি হচ্ছে- তা বিস্তারিত যাচাই করা হবে। প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে প্রতিবেদন পাঠানো হবে।

গতকালের সভায় ইউনিলিভার, স্কয়ার, এসিআই, কোহিনুর কেমিক্যাল, কল্লোল গ্রুপসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

ইউনিলিভারের প্রধান আর্থিক কর্মকর্তা জাহিদ মালিথা বলেন, এসব পণ্য উৎপাদনের ৮০ শতাংশ কাঁচামালই বিদেশ থেকে আমদানি করতে হয়। বিশ্ববাজারে কাঁচামালের দাম এবং ডলারের দাম বাড়লে উৎপাদন ব্যয় বেড়ে যায়। ফলে দেশের বাজারে এর প্রভাব পড়ে।

২০২০ সালে ইউনিলিভারের ৫০০ গ্রামের ওয়াশিং পাউডারের দাম ছিল ৬০ টাকা, এখন ৯০ টাকা। অর্থাৎ ৫০ শতাংশ দাম বেড়েছে। কিন্তু কাঁচামাল এবং অন্যান্য খরচসহ উৎপাদন ব্যয় বেড়েছে ৯৬ শতাংশ। তাছাড়া গত দুই বছরে টুথপেস্টের দাম বেড়েছে ৬ শতাংশ।

তিনি বলেন, যে পরিমাণ মূল্যস্ম্ফীতি হয়েছে, সে অনুযায়ী দাম বাড়ানো হয়নি। এতে বরং কোম্পানি লোকসানে রয়েছে। ব্যয় সমন্বয় করতে ভবিষ্যতে দাম আরও বাড়তে পারে।

স্কয়ার টয়লেট্রিজের হেড অব অপারেশন মালিক এম সাইদ বলেন, সাবানের দাম হঠাৎ করে বাড়েনি। বিশ্ববাজারে কাঁচামালের দাম বাড়ার সঙ্গে দেশেও এসব পণ্যের দাম সমন্বয় করতে হয়েছে।

তবে এখন কিছু কাঁচামালের দাম কমতে শুরু করলেও দেশে কমানো সম্ভব হচ্ছে না। কারণ এখনও অনেক কাঁচামাল আসছে, যার এলসি আগে খোলা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে