কোন মেকআপ কিটের মেয়াদ কতদিন?

প্রকাশিত: আগস্ট ৩০, ২০২২; সময়: ৯:৪৬ am |
কোন মেকআপ কিটের মেয়াদ কতদিন?

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : মেকআপের হরেক রকম পণ্যই আছে স্মিতার। তবে লাল রঙা লিপস্টিকটা বেশ প্রিয়। বহুদিন হয়ে গেলেও বিশেষ দিনে সেটিই ব্যবহার করেন তিনি। এই তালিকায় রয়েছে আইশ্যাডো প্ল্যাটারও। খুব বেশি ব্যবহার করা হয় না বলে নতুন প্ল্যাটার আর কেনেননি। ৪ বছর ধরে একই প্ল্যাটার ব্যবহার করছেন।

জীবাণু কিন্তু বাসা বাঁধতে পারে মেকআপ সামগ্রীতেও। আর তাই, নির্দিষ্ট সময় পর তা ব্যবহার করলে সরিরেও জীবাণু ছড়িয়ে পড়তে পারে। দেখা দিতে পারে ত্বক বা চোখের সংক্রমণ। কিন্তু কী করে বুঝবেন যে আপনার মেকআপ কিটের মেয়াদ শেষ হয়েছে?

এই বিষয়ে সবচেয়ে ভালো হয় যদি এক্সপায়ার ডেট দেখে নেন। অনেকেই মেকআপ কিট কিনলেও এর মেয়াদ কতদিন থাকবে তা জানার প্রয়োজন মনে করেন না। দেখতে একই রকম থাকায় সহজে বোঝাও যায় না এর মেয়াদ শেষ হলো কিনা। প্রতিটি মেকআপ কিট নির্দিষ্ট সময় অব্দি ভালো থাকে। জানুন বিস্তারিত-

আই লাইনার

সাধারণত ৩ মাস থেকে ১ বছর পর্যন্ত আই লাইনারারের মেয়াদ থাকে। পেন্সিল লাইনার হলে বছরখানেক তা ব্যবহার করতে পারেন। আর যদি জেল বা তরল লাইনার হয় তবে কয়েক মাসের বেশি এটি ব্যবহার করা উচিত নয়।

লিপস্টিক

বছর খানেক নিশ্চিন্তে ব্যবহার করতে পারেন এটি। এই তালিকায় আরও আছে লিপ লাইনার, লিপ গ্লস, লিপ বামও আছে। লিপস্টিক ঠান্ডা বা শীতল কোনো স্থানে রাখার চেষ্টা করবেন।

পাউডার

সাধারণত ১৮-২৪ মাস পর্যন্ত রাখা যায় পাউডার। নিয়মিত ব্যবহার না হলে এই সময়ের আগেই পাউডারে ব্যাকটেরিয়া জমতে পারে। এই তালিকায় আছে সাধারণ পাউডার, ফেস পাউডার, ব্লাশন, আইশ্যাডো ইত্যাদি।

মনে রাখবেন মেকআপের বাক্সের কোনও সামগ্রীরই আয়ু অনন্ত নয়। তাই নির্দিষ্ট মেয়াদ শেষে এগুলো ব্যবহার করা থেকে দূরে থাকুন। এতে ত্বক ও চোখ সুরক্ষিত থাকবে। ব্রণ বা অ্যালার্জির সমস্যাও কমে হবে। তাছাড়া, মেকআপ কিটগুলো ছড়িয়ে ছিটিয়ে না রেখে গুছিয়ে পরিষ্কার স্থানে রাখাও জরুরি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে