বিএনপির সঙ্গে নেই জামায়াত : ডা. শফিকুর

প্রকাশিত: আগস্ট ২৮, ২০২২; সময়: ১:৩৭ pm |
বিএনপির সঙ্গে নেই জামায়াত : ডা. শফিকুর

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : বিএনপির সঙ্গে জামায়াতকে রাখা-না রাখা আলোচিত-সমালোচিত এক রাজনৈতিক ইস্যুর নাম। বিভিন্ন ইস্যুতে দলদুটির মধ্যে টানাপড়েনও দীর্ঘদিনের। জামায়াতের সঙ্গে না থাকার জন্য বিভিন্ন মহল থেকে চাপও ছিল বিএনপির ওপর। বিষয়টির পক্ষে বিভিন্ন সময়ে প্রকাশ্যে বক্তব্যও দিতে দেখা গেছে বিএনপির কোনো কোনো নেতাকে। তবে জামায়াতের পক্ষ থেকে এ নিয়ে কখনো কিছুই শোনা যায়নি। তবে এবার দুই দলের মতপার্থক্যের বিষয়টি প্রকাশ্যে এসেছে।

সম্প্রতি বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের ব্যাপারে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করেছেন জামায়াতের আমির ডা. শফিকুর রহমান। এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও ক্লিপ সময় টেলিভিশনের হাতে এসেছে।

ভিডিওতে দেখা যায়, দলের একটি ঘরোয়া বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডা. শফিকুর রহমান বলেন, ‘আমরা এতদিন একটা জোটের সঙ্গে ছিলাম। ছিলাম বলে আপনারা হয়তো ভাবছেন কিছু হয়ে গেছে নাকি? আমি বলি হয়ে গেছে। ২০০৬ সাল পর্যন্ত এটি একটি জোট ছিল। ২০০৬ সালের ২৮ অক্টোবর জোট তার দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়েছে। সেদিন বাংলাদেশ পথ হারিয়েছিল। সেটা আর ফিরে আসেনি।’

তিনি বলেন, বছরের পর বছর এ ধরনের অকার্যকর জোট চলতে পারে না।

এদিকে, ২০ দলীয় জোট তথা বিএনপির সঙ্গে জামায়াতের এই মনস্তাত্ত্বিক দূরত্বের কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে জামায়াতের উচ্চ পদস্থ এক নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, এটি নতুন কোনো বিষয় নয়; বরং দীর্ঘদিনের।

এ ব্যাপারে প্রধানত তিনটি কারণের কথা উল্লেখ করেন জামায়াতের এ নেতা।

তিনি বলেন, ‘ক্ষোভের শুরু মূলত ২০০৬ সালের পর থেকেই। পরে মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ তুলে ২০১০ সালের ২৫ মার্চ জামায়াত নেতাদের বিচারের নামে যে কার্যক্রম শুরু হয় এবং পরবর্তীতে একের পর এক জামায়াত নেতার ফাঁসি হয়; কিন্তু জোটের সদস্য হিসেবে বিএনপি এ বিষয়ে কোনো কার্যকর পদক্ষেপ নেয়নি, যা জামায়াতকে ভাবিয়ে তুলেছিল।’

‘দ্বিতীয়ত, ক্ষমতাসীন জোটের বিরুদ্ধে গঠিত “জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে” বিএনপির অগ্রণী ভূমিকা থাকলেও সেখানে জামায়াতের কার্যকর অংশগ্রহণ ছিল না। মূলত ২০ দলীয় জোটকে পাশ কাটিয়েই ঐক্যফ্রন্ট গঠন করেছিল বিএনপি, যেখানে জামায়াতকে অবহেলা করা হয়েছে। এটি দলের (জামায়াত) ভেতরে ক্ষোভের সৃষ্টি করেছে,’ বলেন এ নেতা।

ততৃীয় কারণ হিসেবে তিনি বলেন, ‘বিগত বেশকিছু কর্মসূচি এবং রাজনৈতিক অনুষ্ঠানে জামায়াত নেতাদের দাওয়াত দেয়া হয়নি; জোটের সদস্য হিসেবে এটি খুবই দৃষ্টিকটু লেগেছে।’ ‘এরপরও তাদের (বিএনপি) সঙ্গে থাকাটা কতটা যৌক্তিক’, প্রশ্ন করেন তিনি।

এছাড়া ২০ দলীয় জোট থেকে জামায়াতকে বের করে দিতে দীর্ঘদিন ধরেই বিএনপির ওপর চাপ ছিল। কিন্তু সে বিষয়ে দলীয়ভাবে বা জোটের পক্ষ থেকে বিএনপি থেকে আনুষ্ঠানিক কোনো বক্তব্য বা বিবৃতি দেয়া হয়নি ঠিকই; তবে বিএনপির একাধিক নেতা প্রকাশ্যে জামায়াতকে জোট থেকে বের করে দেয়ার কথা বলেছেন, যা জোটসদস্য হিসেবে জামায়াতকে বিব্রত করেছে। এটিকেও ক্ষোভ সঞ্চারের অন্যতম কারণ বলে মনে করেন এ জামায়াত নেতা।

প্রসঙ্গত, ১৯৯৯ সালের ৬ জানুয়ারি জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ, জামায়াতের তৎকালীন আমির গোলাম আযম এবং ইসলামী ঐক্যজোটের তৎকালীন চেয়ারম্যান শায়খুল হাদিস আজিজুল হককে সঙ্গে নিয়ে চারদলীয় জোট গঠন করেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

পরবর্তীতে ২০০১-২০০৬ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকে এ জোট। পরবর্তীতে বিরোধীদলে থাকা অবস্থায় বিএনপির নেতৃত্বে ২০১২ সালের ১৮ এপ্রিল ১৮টি দল এবং পরবর্তীতে পর্যায়ক্রমে আরও ২টি দলের সমন্বয়ে ২০ দলীয় জোট গঠিত হয়, যার অন্যতম সদস্য বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • বাড়ির পাশের সড়কে পড়েছিল ইউপি সদস্যের মরদেহ
  • দেশের ১৫ জেলায় ঝড়-বৃষ্টির আভাস
  • সবজির হাটে মালবাহী ট্রাকের চাপায় নিহত ৪
  • ইউরোপে প্রবৃদ্ধিতে শীর্ষে বাংলাদেশ
  • স্টেডিয়াম ভেঙে আহত ৪
  • তীর্থযাত্রীদের নিয়ে পুকুরে ট্রাক্টর, নিহত ২৬
  • বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির বিষয়ে প্রতিবেদন দাখিল পিছিয়েছে
  • স্কুলছাত্রী অপহরণের অভিযোগে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা
  • ‘বাকির’ ১০০ টাকার জন্য প্রাণ গেল কাঠমিস্ত্রীর
  • চালের ড্রামে লুকানো ছিল শিশুর লাশ
  • ৫০০ টাকায় মিলবে জেলে থাকার স্বাদ
  • ছাত্রলীগ নেতার পা কেটে নেওয়ার হুমকি সাবেক এমপির
  • ইন্দোনেশিয়ায় ফুটবল মাঠে পদদলিত হয়ে নিহত ১২৯
  • ইমরান খানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা
  • ক্রীড়াসেবী ফাউন্ডেশনের চেক পেলেন রাজশাহীর ৮৮ জন
  • উপরে