ফরিদপুরে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ১১ সদস্যের অভিযোগ

প্রকাশিত: আগস্ট ২৭, ২০২২; সময়: ৬:০০ pm |
ফরিদপুরে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ১১ সদস্যের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, পাবনা : নানা অনিয়ম-দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগে পাবনার ফরিদপুর উপজেলার পুঙ্গলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সাজেদুল ইসলাম সুমনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন পরিষদের ১১ সদস্য। এ বিষয়ে পুঙ্গলী ইউনিয়নের শালিকা বাজারে এক সংবাদ সম্মেলন করেছেন ইউপি সদস্যরা। সংবাদ সম্মেলনে সাধারণ ও সংরক্ষিত ১২ সদস্যের মধ্যে ১১ জন উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ইউপি সদস্যরা অভিযোগ করে বলেন, চলতি বছরের ১৪ ফেব্রুয়ারী দায়িত্ব গ্রহণের পর নির্বাচিত চেয়ারম্যান, ইউপি সদস্যদের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এরপর থেকেই চেয়ারম্যান সাজেদুল ইসলামের সীমাহীন দুর্নীতি, স্বেচ্ছাচারিতায় জড়িয়ে পড়েছেন।

ইউপি সদস্যদের অভিযোগ, কাবিটা প্রকল্পের মেঘডুম্বর খেয়াঘাট হতে শ্রীগোবিন্দপুর অভিমূখে রাস্তা নির্মাণ কাজের ৪ লাখ পাঁচ হাজার টাকার কাজ না করেই বিল উত্তোলন করে আত্মসাত করেছেন চেয়ারম্যান। অন্যদিকে টিআর প্রকল্পের পুঙ্গলী ইউনিয়নের উন্নয়নমূলক কাজের ৩ লাখ টাকা, বিল চান্দক সাব মার্সিবল রোড় হতে খেলার মাঠ অভিমুখে রাস্তা সংস্কারের ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা, দিঘুলিয়া মাদরাসা হতে বাহাদুর খার জমি পর্যন্ত ক্যানাল মেরামত বাবদ ১ লাখ ১৫ হাজার টাকার কোন কাজই দৃশ্যমান হয়নি।

এছাড়া ৪০ দিনের কর্মসূচি প্রকল্পে শ্রমিকদের সাক্ষর/টিপসই জাল করে কাজ না করেই অর্থ আত্মসাত করা হয়েছে। তিনটি মাটির রাস্তার কাজে ২২ লক্ষাধিক টাকা আত্মসাত করা হয়েছে। ইউপি মেম্বরদের সঙ্গে কোন প্রকাল আলোচনা না করেই তাদের হুমকি-ধামকি দিয়ে এসব টাকা আত্মসাত করা হয়।

ইউপি সদস্য গোলজার হোসেন, আবু সাইদ, রবিউল ইসলাম, মন্টু প্রামানিক অভিযোগ করে বলেন, তাদের সাথে কোন প্রকার আলোচনা বা সমন্বয় না করে এককভাবে সিদ্ধান্ত নিয়ে স্বেচ্ছাচারিতা করছেন চেয়ারম্যান সাজেদুল ইসলাম সুমন। তিনি পেশী শক্তি, হুমকি-ধামকি এবং বহিরাগতদের নিয়ে পরিষদ চত্তরেই চেয়ারম্যান মাদক সেবন করেন বলে অভিযোগ ইউপি সদস্যদের।

এসব অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগে তারা অবিলম্বে ইউপি চেয়ারম্যান সাজেদুল ইসলাম সুমনের পদত্যাগ দাবি করেন। এসব অভিযোগ তুলে তদন্তের দাবিতে দুদক, স্থানীয় সরকার বিভাগ সহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ইউপি সদস্যরা।

সংবাদ সম্মেলনে ইউপি সদস্য গোলজার হোসেন, আবু সাইদ, রবিউল ইসলাম, মন্টু প্রামানিক, সোহেল রানা, মুকুল হোসেন সরদার, মাহাতাব উদ্দিন, আসমা খাতুন, শাপলা খাতুন সহ ১১ জন সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সাজেদুল ইসলাম সুমন বলেন, অভিযোগগুলো মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। যেসব প্রকল্পের কথা বলা হয়েছে সেগুলো ট্যাগ অফিসার নিয়োগ করা ছিল। তারা কাজ দেখে তারপর বিল দিয়েছে। একটি প্রকল্পের কাজ করা হয়নি বন্যার পানি থাকার কারণে। পানি নেমে গেলে কাজ করা হবে। আর কর্মসৃজন প্রকল্পে শ্রমিকদের মোবাইলে টাকা আসে ঢাকা থেকে। এখানে কোনো অনিয়ম বা দুর্নীতি করা হয়নি।

এ বিষয়ে ফরিদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জেসমীন আরা কে কয়েকবার ফোন দেয়া হলেও তিনি ফোন রিসিভি না করায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • সিংড়ায় আম পাতা খাওয়ায় দুটি ছাগলের পা ভেঙ্গে দিল প্রতিপক্ষ
  • সুজানগরে প্রায় ৬ কোটি টাকার সুপেয় পানি প্রকল্পে দুর্নীতির অভিযোগের দ্বিতীয় দফা তদন্ত
  • নন্দীগ্রামে যাত্রীবাহী বাস উল্টে দুই নারী নিহত
  • নাটোরে পানিতে ডুবে সহোদর ভাই বোনের মৃত্যু
  • সুজানগরে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় শিক্ষককে পিটিয়ে আহত করল ছাত্র
  • প্রাথমিক শিক্ষা পদক পাচ্ছেন নওগাঁ জেলার শ্রেষ্ঠ দুই শিক্ষিকা
  • বড়াইগ্রামে ৫০ পূজা মন্ডপে চাল বিতরণ
  • বড়াইগ্রামে কৃষি প্রণোদনা বিতরণ
  • ২ নভেম্বর শিবগঞ্জের দুর্লভপুর ইউপি নির্বাচন
  • পানামা সোনামসজিদ পোর্টে বসছে অগ্নিনির্বাপক পানির পাম্প
  • আত্রাইয়ে বাঁশ ঝাড় থেকে নিখোঁজ বৃদ্ধার লাশ উদ্ধার
  • উল্লাপাড়ায় রঞ্জু হত্যার রহস্য উদঘাটন, গ্রেপ্তার ৩
  • ধামইরহাটে দুর্বৃত্তের আগুনে পুড়লো দোকান
  • সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে সাফ জয়ী নারী ফুটবলার আঁখিকে সংবর্ধনা 
  • কচুয়ায় নারী শ্রমিকদের প্রশিক্ষণ
  • উপরে