শিবগঞ্জে বিয়ের প্রলোভনে গার্মেন্টস কর্মীকে ধর্ষণ

প্রকাশিত: আগস্ট ১৬, ২০২২; সময়: ৬:০১ pm |
শিবগঞ্জে বিয়ের প্রলোভনে গার্মেন্টস কর্মীকে ধর্ষণ

নিজস্ব প্রতিবেদক, শিবগঞ্জ : বগুড়ার শিবগঞ্জে বিয়ের প্রলোভনে গার্মেন্টস কর্মীকে ধর্ষনের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ১৩ আগস্ট শিবগঞ্জ উপজেলার গুজিয়া এলাকায়।

ঘটনার সাথে জড়িত ২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ। তারা হলেন উপজেলার মেদেনীপাড়া গ্রামের মৃত: সরবার এর ছেলে গফুর প্রামানিক (৩২) ও মেদিনীপাড়া পননাতপুর গ্রামের মেহেদুল মন্ডল এর ছেলে জাহিদ মন্ডল ওরফে মিলনু (২৫) কে আটক করেছে পুলিশ।

থানার মামলা সূত্রে জানা গেছে, নেত্রকোনা জেলার কলমাকান্দা থানা এলাকার এক গার্মেন্ট কর্মীর সাথে শিবগঞ্জ উপজেলার মেদেনীপাড়া গ্রামের মৃত সরবার এর ছেলে মালয়েশিয়া ফেরত গফুর প্রামানিক মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। গার্মেন্ট কর্মী ও মালয়েশিয়া ফেরত গফুর দীর্ঘদিন যাবৎ মোবাইল ফোনে কথাবর্তা বলতে থাকে।

গত ১০ মাস পূর্বে গফুর দেশে ফিরে আসে। ওই গার্মেন্টস কর্মীকে বিয়ে প্রলোভন দিয়ে ১৩ আগস্ট প্রেমিক শিবগঞ্জ উপজেলার গুজিয়াতে আসতে বলে। ধর্ষনের শিকার ওই প্রেমিকা গুজিয়াতে আসলে প্রেমিক তার বন্ধু সিরাজুল এর বাড়িতে নিয়ে যায়। ১৪ আগস্ট রাত ৩টায় বিয়ের প্রলোভন দিয়ে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করে।

এরপর ওই রাতেই মামলার এজাহার ভুক্ত আসামী সিরাজুল ও জাহিদ মন্ডল মিলন নারীর শয়ন কক্ষে প্রবেশ করে ধর্ষনের চেষ্টা করে। প্রেমিকও গার্মেন্টেস কর্মীকে বিয়ে না করে বাড়িতে পাঠাতে চাইলে প্রেমিকা ঘুমের ঔষুধ সেবন করায় গুজিয়া বন্দরে হঠাৎ অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। প্রেমিক ও তার বন্ধুরা ওই গার্মেন্টস কর্মীকে দ্রুত শিবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসে।

চিকিৎসা সেবায় গার্মেন্টস কর্মী সুস্থ্য হলে গফুর তাকে বিয়ে করতে রাজি না হওয়ায় ধর্ষনের শিকারিনী গফুর সহ ৩ জনের বিরুদ্ধে থানায় ধর্ষন মামলা করেন।

থানা অফিসার ইনচার্জ দীপক কুমার দাস বলেন, এ ঘটনায় থানায় ধর্ষন মামলা নেওয়া হয়েছে। ধর্ষক ও তার বন্ধু জাহিদ মন্ডল কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পলাতক আসামীকে গ্রেপ্তার করতে তৎপর রয়েছে পুলিশ।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
topউপরে