পাউবোর জমি দখল করে আ.লীগ নেতার রেস্টুরেন্ট

প্রকাশিত: জুলাই ২৯, ২০২২; সময়: ১২:৫৯ pm |
পাউবোর জমি দখল করে আ.লীগ নেতার রেস্টুরেন্ট

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : তিস্তা ব্যারাজের পাশে ফ্লাড বাইপাস সড়কের কোলঘেঁষে পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) প্রায় ৩০ শতাংশ অধিগ্রহণকৃত জমি দখল করে ‘বৈরালী ফাস্টফুড চাইনিজ রেস্টুরেন্ট অ্যান্ড কমিউনিটি সেন্টার’ খুলে বসেছেন লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও গড্ডিমারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক।

সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানটির উদ্বোধন করেছেন লালমনিরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও লালমনিরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মোতাহার হোসেন। এ নিয়ে সাধারণ মানুষের মাঝে চরম সমালোচনা চলছে। তবে ভয় কেউ কিছু বলছেন না।

আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামল লালমনিরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য মোতাহার হোসেনের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মোতাহার হোসেন কলেজের অধ্যক্ষ। এছাড়াও তিনি হাতীবান্ধা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা আওয়ামী লীগের ঘোষিত কমিটির সদস্য এবং গড্ডিমারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান।

হাতীবান্ধা থানায় দেওয়া পাউবোর অভিযোগ থেকে জানা গেছে, তিস্তা ব্যারাজ এলাকার ৫নং চেক পোস্টের বিপরীত পাশে ফ্লাড বাইপাসের ১০০ গজ দূরে সরকারি জায়গা জোরপূর্বক দখল করে স্থাপনা নির্মাণের কাজ শুরু করেন আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামল। বিষয়টি জানার পরপরই তাকে নির্মাণকাজ বন্ধ করতে মৌখিকভাবে বলা হলেও কাজ বন্ধ করেননি।

এরপর গত বছরের ১১ আগস্ট ও ২৫ আগস্ট পাউবোর উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী (অতিরিক্ত দায়িত্ব) রাশেদীন অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নিতে পর পর দুটি নোটিশ দেন। এতেও কাজ না হলে হাতীবান্ধা থানায় গত বছরের ১ সেপ্টেম্বর একটি লিখিত অভিযোগ করেন পাউবোর সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা আব্দুর রউফ।

এদিকে নীলফামারীর ডালিয়া পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী আসফাউদদৌলা পাউবোর অধিগ্রহণকৃত সম্পত্তিতে ফ্লাড বাইপাস তিস্তা ব্যারাজ প্রকল্প এলাকায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের জন্য লালমনিরহাট জেলা প্রশাসককে গত বছরের ২ সেপ্টেম্বর একটি চিঠি দিয়ে অনুরোধ করেন। সেই চিঠিটি তখন থেকেই পড়ে রয়েছে।

এরপর একদিনের জন্যও বন্ধ থাকেনি নির্মাণকাজ। পাউবো আবারও চলতি বছরের ৬ জুন প্রতিষ্ঠানটি উচ্ছেদের জন্য লালমনিরহাট জেলা প্রশাসককে অনুরোধ করে আরও একটি চিঠি দেন। কিন্তু রহস্যজনক কারণে জেলা প্রশাসন এবারও চুপ থাকে। নির্মাণকাজ শেষে ঘটা করে গত ৭ জুলাই প্রতিষ্ঠানটি উদ্বোধনের জন্য দিনক্ষণ ঠিক করা হয়। ওই দিন ‘বৈরালী ফাস্টফুড চাইনিজ রেস্টুরেন্ট অ্যান্ড কমিউনিটি সেন্টার’ উদ্বোধন করা হয়।

তিস্তা ব্যারাজের দোয়ানী এলাকার কয়েকজন জানান, দীর্ঘদিন ধরে পাউবোর জায়গায় তারা অস্থায়ী ঘর নির্মাণ করে বসবাস করে আসছেন। তবে তারা পাউবোর জায়গায় স্থায়ী অবকাঠামো নির্মাণের সাহস পাননি। কিন্তু আওয়ামী লীগ নেতা ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামল জায়গা দখল করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুললেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হাতীবান্ধাসহ জেলার একাধিক আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মী বলেন, দেশের গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনার মধ্যে তিস্তা ব্যারাজ একটি। সেই ব্যারাজের জমি দখলে নিয়ে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামল। আবার অবৈধভাবে গড়ে তোলা সেই প্রতিষ্ঠানের ঘটা করে উদ্বোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য। এটা আমাদের জন্য লজ্জার।

পাউবোর সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা আব্দুর রব জানান, তিস্তা ব্যারাজ ও ফ্লাড বাইপাস সড়কের আশপাশে কোনো ব্যক্তি মালিকানাধীন জমি নেই। পাউবোর জায়গায় ভূমিহীনরা অস্থায়ীভাবে বসবাস করছেন। কিন্তু কেউ স্থাপনা নির্মাণ করতে পারবেন না।

নীলফামারী পানি উন্নয়ন বোর্ডের (ডালিয়া) নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আসফাউদদৌলা বলেন, লালমনিরহাট জেলা প্রশাসককে দুই দফায় চিঠি দিয়েও দখলদারদের উচ্ছেদ করতে পারছি না। এটি আমাদের জন্য বড়ই পরিতাপের বিষয়। তবে তিনি জোর দিয়ে বলেন, দখলদাররা যতই ক্ষমতাশালী হোক না কেন, এটি উচ্ছেদ করা হবেই।

লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক আবু জাফর বলেন, পানি উন্নয়ন বোর্ড থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের জন্য অনুরোধ করে চিঠি পাওয়া গেছে। দ্রুততম সময়ের মধ্যে এ বিষয়ে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে