গয়নায় সাজবে মেয়ে, কান ফোঁড়াবেন যেভাবে

প্রকাশিত: জুলাই ২৭, ২০২২; সময়: ৯:৪২ am |
গয়নায় সাজবে মেয়ে, কান ফোঁড়াবেন যেভাবে

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : মেয়েদের সৌন্দর্য্যের জন্য গয়না পড়া নতুন নয়। বলা যায়, মেয়েরা সাজসজ্জায় গয়না পাগল। কানে, গলায়, নাকে গয়না পরে থাকতে মেয়েরা বেশ পছন্দ করে। ফ্যাশন ট্রেন্ডের সঙ্গে মিলিয়ে গয়নারও পাল্টে যায়। কখনো সোনার গয়না কিংবা কখনো ডায়মন্ডের ঝোঁক ঝেকে বসে।

গয়না পরতে মেয়েদের কম বয়সেই কান বা নাক ফোঁড়ানো হয়। শিশু বয়সেই মেয়েদের কান ফোঁড়ানো তো চিরাচরিত রীতি। অনেকে কান ফোঁড়ানোর পর ঘটা করে অনুষ্ঠানও করে। বেশ আনন্দের সঙ্গেই মেয়েকে গয়না পরানো শুরু করেন অভিভাবকরা। তবে আগে নানি-দাদিরা সেলাইয়ের সুঁই দিয়েই কান ফুঁড়িয়ে দিতেন।

সুঁই গরম করে শিশুর কানে ফুঁটিয়ে দিতেন। সুঁইয়ের আগায় থাকতো সুতা বাঁধা। যা দিয়ে ঢিলে করে গিঁট বেধে দিতেন কানে। কয়েকদিন মধ্যেই শুকিয়ে যেত কানের ফুটো। এরপর সুতা খুলে কানে সোনার দুল পরিয়ে দেওয়া হতো।

বর্তমান সময়ে সেই রীতি এখন নেই বললেই চলে। মেয়ে শিশুদের কান ফোঁড়াতে এখন দাদি-নানির কাছে গিয়ে বসতে হয় না। বরং পার্লারগুলোতেই কান ফোঁড়ানো ব্যবস্থা করা থাকে। তাও আবার ব্যথা ছাড়াই। ছোট্টমনিদের আরামের কথা ভেবে মায়েরাও পার্লারেই ছুটে যান। সেখানে সার্জিকাল নিডেল ব্যবহার করে কান ফোঁড়ানোর পর দুল পরিয়ে দেওয়া হয়।

ব্যথা উপশমের জন্য কান ফোঁড়ানোর আগে স্প্রে করে অ্যানেসথেসিয়াও দেওয়া হয়। জায়গাটি অবশ হলেই সহজে কান ফোঁড়ানো হয়ে যায়। তবে পার্লার থেকে সাধারণ পাথরের গোল্ড প্লেটেড কানের দুল পরিয়ে দেবে। তাই সোনার দুল পরাতে হলে সঙ্গে নিয়ে যেতে হয় অভিভাবকদের।

সুঁইযুক্ত বিশেষ গান বা যন্ত্রের সাহায্যে কান ফোঁড়ানোর এই রীতিই এখন বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। কারণ এটি ব্যথাবিহীন এবং দ্রুত শুকিয়েও যায়। তিন থেকে পাঁচ দিনের মধ্যেই কান শুকিয়ে যাবে এবং গোল্ড প্লেটেডের দুল খুরে সোনার দুল পরিয়ে নেয়া যাবে। পুরো প্রক্রিয়াটিতে খরচও কম হয়। রাজধানীর নামীদামী পার্লারগুলোতে ১০০০ থেকে ১৬০০ টাকার মধ্যেই কান ফোঁড়ানোর সুযোগ থাকছে। তাছাড়া স্থানীয় পার্লারে আরো কম খরচে ফুড়িয়ে নেয়া যাবে শিশুর কান। শুধু শিশুরাই নয়, তরুণীরাও কানের একাধিক ফুটো করে এখন গয়না পরে। তারাও পছন্দ মতো কান ফুটো করে নিতে পারবে।

কখন কান ফোঁড়াবেন –

রূপ বিশেষজ্ঞরা জানান, আগে ছয় মাসের বাচ্চাকেও কান ফোঁড়ানো হতো। এখন বেশি বয়স হলে কান ফোঁড়ানো হয়। তবে ১২ বছর বয়সের মধ্যেই মেয়েদের কান ফোঁড়ানো ভালো। বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মানুষের শরীরের গঠনেও পরিবর্তন হয়। কানের হাড় শক্ত হয়ে যায়। কানে ইনফেকশন হওয়ার সম্ভাবনাও বেশি থাকে।

কান ফোঁড়ানোর পর যা করবেন-

কান ফোঁড়ানোর পর কিছু বিষয়ে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন রূপ বিশেষজ্ঞরা। যেমন কান ফোঁড়ানোর পরে কয়েকদিন অ্যালার্জিজাতীয় খাবার খাওয়া যাবে না। ভিটামিন সি যুক্ত খাবার বেশি খেতে হবে। এতে দ্রুত কান শুকিয়ে যাবে। কানে ইনফেকশন না হয় সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে। পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে। কান ফোঁড়ানো পর শুকিয়ে গেলেও কানের দুল খোলা যাবে না। অনেকের কান বন্ধ হয়ে যাওয়ার সম্ভবনা থাকে। তাই বেশকিছুদিন কানের দুল পরেই থাকতে হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে