প্রেসিডেন্ট ভবনের সহস্রাধিক প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন গায়েব

প্রকাশিত: জুলাই ২৪, ২০২২; সময়: ৪:৪১ pm |
প্রেসিডেন্ট ভবনের সহস্রাধিক প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন গায়েব

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোতে প্রেসিডেন্ট ভবন ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে এক হাজারের বেশি প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন হারিয়ে গেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

গতকাল শনিবার পুলিশ জানায়, সরকারবিরোধী বিক্ষোভকারীরা এ দুই ভবনে প্রবেশের ঘটনার পর থেকে এসব মূল্যবান নিদর্শন খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। অনলাইন পোর্টাল কলম্বো পেজের বরাত দিয়ে এনডিটিভি এ খবর জানায়।

গত ৯ জুলাই সরকারবিরোধী বিক্ষোভকারীরা দলে দলে সাবেক প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপাকসে ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহের বাসভবনে প্রবেশ করেন।

গণমাধ্যমে প্রকাশিত ছবিতে দেখা যায়, কলম্বোর টেম্পল ট্রির প্রেসিডেন্ট ভবনে বিক্ষোভকারীরা গোটাবায়ার শয়নকক্ষে প্রবেশ করে সেলফি তুলছেন। কেউ কেউ তাঁর বিছানায় আরাম করে শুয়ে আছেন। অনেকে সুইমিংপুলে নেমে গোসল সারছেন। অবশ্য পরে তাঁরা এ দুই ভবন থেকে সরে যান।

প্রাথমিক তদন্তের পর শ্রীলঙ্কার পুলিশ জানায়, কমপক্ষে এক হাজার প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন হারিয়ে গেছে। এগুলোর মধ্যে বিরল কিছু নিদর্শনও ছিল। এ নিয়ে অধিকতর তদন্তের জন্য একটি বিশেষ তদন্ত দল গঠন করা হয়েছে। যে নিদর্শনগুলো হারিয়েছে, সেগুলোর বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য শ্রীলঙ্কার প্রত্নতাত্ত্বিক বিভাগের কাছে নেই।

এগুলো প্রেসিডেন্ট ভবন ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়েই সংরক্ষিত ছিল। দেশটির প্রত্নতাত্ত্বিক বিভাগের এই জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা গণমাধ্যমকে বলেন, এগুলোর বিষয়ে সুনির্দিষ্ট তথ্য দেওয়া কঠিন। কতগুলো হারিয়েছে, সেটাও নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। তবে এ সংখ্যা এক হাজারের কম নয়।

এ প্রেক্ষাপটে শ্রীলঙ্কার নতুন প্রেসিডেন্ট রনিল বিক্রমাসিংহে বলেন, তিনি জনগণের শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভের অধিকারকে সম্মান জানান। তবে প্রেসিডেন্ট ভবন ও প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে আর একবারও তাদের প্রবেশের সুযোগ তিনি দেবেন না।

রনিল বলেন, বিক্ষোভ চলাকালে সরকারি ভবন ও পার্লামেন্টে হামলা ঠেকাতে যে কোনো ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য তিনি সশস্ত্র বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছেন। গত সপ্তাহে তিনি বলেন, পার্লামেন্ট ও এর সদস্যদের দায়িত্ব পালনে বাধা সৃষ্টি করা বিক্ষোভকারীদের উচিত নয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে