ঈশ্বরদীতে ওয়েল মিল নির্মাণের প্রতিবাদে বিক্ষোভ

প্রকাশিত: জুলাই ২২, ২০২২; সময়: ৬:৫১ pm |
ঈশ্বরদীতে ওয়েল মিল নির্মাণের প্রতিবাদে বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঈশ্বরদী : ঈশ্বরদীতে জনবসতিপূর্ণ এলাকা ও কৃষিজমিতে রাইস ব্রান ওয়েল মিল নির্মাণের প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে এলাকাবাসী।

শুক্রবার দুপুরে উপজেলা পরিবেশ রক্ষা কমিটির আয়োজনে পৌর এলাকার ইস্তায় এ বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। বিক্ষোভকারীরা নির্মাণাধীন ওয়েল মিলের সামনে ব্যানার ও ফেস্টুন নিয়ে এ মিল স্থাপনের প্রতিবাদে নানা শ্লোগান দেন।

এলাকাবাসী জানান, ঈশ্বরদী পৌর এলাকা ও সলিমপুর ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী ইস্তা এলাকায় ব্যবসায়ী মধু বিশ্বাস প্রায় ৬ বিঘা কৃষি জমিতে ‘আরবী রাইস ব্রান ওয়েল মিল’ নির্মাণ করছেন। ইতিমধ্যে এ মিলের ভবন নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। জনবসতিপূর্ণ এলাকায় এ ওয়েল মিল নির্মাণ করা হলে এ মিলের বর্জ্য, ছাই ও কালো ধোঁয়ায় পরিবেশ বিপর্যয় ঘটবে। ধোঁয়া ও ছাইয়ের কারণে কৃষি জমির ফলন কমে যাবে। এখানকার মানুষ স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পরবে। তাই কোনভাবেই এখানে ক্ষতিকর ও জীবন বিপন্নকারী এ প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে দেয়া হবে না।

এলাকাবাসী দেলোয়ার হোসেন ডিলার জানান, এ মিলের চারপাশে জনবসতি রয়েছে। এখানে ওয়েল মিল নির্মাণ করা হলে পরিবেশ বিপর্যয়ের মুখে পড়বে। এ এলাকায় মানুষ বসবাস করতে পারবে না। পরিবেশ দুষণের কারণে বাড়ি-ঘর ছেড়ে চলে যেতে হবে। তিনি, ঈশ্বরদীর ঢুলটি রশিদ ওয়েল মিলের উদাহরণ দিয়ে বলেন, ওই মিলের আশপাশে যাদের বাড়িঘর ছিল তারা বাধ্য হয়ে ওই মিল মালিকের কাছে কমদামে জমি বিক্রি করে অন্যত্র গিয়ে বাড়ি করতে বাধ্য হয়েছে। মিলের বর্জ্যরে অসহনীয় গন্ধ, কালো ধোঁয়া ও ছাইয়ের কারণে বাড়ি-ঘরের টিন পর্যন্ত নষ্ট হয়ে গেছে। একই ধরনের মিল এ এলাকায় করতে দেয়া হবে না।

উপজেলা পরিবেশ রক্ষা কমিটির সাধারণ সম্পাদক বীরমুক্তিযোদ্ধা আনছারুল হক জানান, রাইস ব্রান ওয়েল মিলের বর্জ্যে ও কালো ধোঁয়া স্বাস্থ্যর জন্য মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ। জনবসতি এলাকায় এ ধরনের শিল্প প্রতিষ্ঠান নির্মাণের কোন নিয়ম নেই। এছাড়া যে জমিতে এ মিল নির্মাণ করা হচ্ছে এটি তিন ফসলি কৃষি জমি। তিন ফসলি জমিতে শিল্প-কারখানা নির্মাণ সরকার নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। সরকারের সব ধরনের নিষেধাজ্ঞাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে এখানে ওয়েল মিল নির্মাণ করা হচ্ছে। ইতিপূর্বে এ জমির পাশে অটো রাইস মিল নির্মাণের চেষ্টা করা হয়েছিল। আমরা পরিবেশ অধিদপ্তরের নিকট অভিযোগ দেয়ার পর তারা স্বশরীরের এসে এটি বন্ধ করে দিয়েছিল। এবারো আমরা বগুড়া পরিবেশ অধিদপ্তরের নিকট লিখিতভাবে অভিযোগ জানাবো।

এ কমিটির সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা মজিবর রহমান জানান, শত শত বছর ধরে এখানে মানুষের বসতি রয়েছে। হঠাৎ করে ঘনবসতি এলাকায় পরিবেশের হুমকি এমন একটি ওয়েল মিল নির্মাণ করা হচ্ছে। যা এখানকার মানুষের জীবনকে বিপন্ন করে তুলবে। বাপ-দাদার ভিটা ছেড়ে যেতে কেউ চায় না। তাই আমাদের জীবন থাকতে এখানে পরিবেশ নষ্টকারী প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে দেয়া হবে না। এলাকাবাসী একট্রা হয়েছে তারা যে কোন মূল্যে এটি প্রতিহত করবে।

নির্মানাধীন আরবী রাইস ব্রান ওয়েল মিলের স্বত্বাধিকারী মধু বিশ্বাস মুঠোফোনে জানান, কিছু ব্যক্তি আমার কাছে থেকে অনৈতিক সুবিধা চেয়েছিল। আমি এতে রাজি না হওয়ায় পরিবেশের অজুহাত দেখিয়ে এলাকাবাসীকে সঙ্গে নিয়ে তারা বিক্ষোভ করেছে। পরিবেশ অধিদপ্তরসহ সংশ্লিষ্ট সকল প্রতিষ্ঠানের অনুমতি নিয়ে এখানে ওয়েল মিল নির্মাণ করা হবে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যদি কোন ক্রুটি দেখেন তাহলে তারা যে ব্যবস্থাগ্রহণ করবেন আমি তা মেনে নিবো। কৃষি জমিতে শিল্প প্রতিষ্ঠান নির্মাণ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এটি কৃষি জমি হলেও এখানে ভালো ফসল হয় না। আমি নিজে এখানে লিচুর বাগান করেছিলাম। সেটি ভালো হয়নি তাই বাধ্যহয়ে লিচু বাগান কেটে ফেলেছি। এছাড়াও অন্যান্য ফসলও এখানে কখনো ভালো হয়নি।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • কুষ্টিয়ায় ফিলিং স্টেশনে আগুন, নিহত ২
  • এনায়েতপুরে মসজিদে মদিনার উদ্বোধন করেন বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন
  • মহাদেবপুরে মাদ্রাসার অফিস সহকারীর বিরুদ্ধে ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা
  • কচুয়ায় এক দোকানে দুধুর্ষ চুরি
  • জঙ্গল-পরিত্যক্ত ঘর যেন মাদক সেবনের সেইফ হোম
  • সুজানগরে অবৈধভাবে বালু তোলার প্রতিবাদে মানববন্ধন
  • ‘তরুণ প্রজন্মের কাছে বঙ্গবন্ধু মহানায়ক’
  • হেলিকপ্টারে বাড়ি ফেরায় আমেরিকা প্রবাসীকে সংবর্ধনা
  • ফরিদপুরে লায়ন্স ক্লাব চক্ষু হাসপাতালের উদ্বোধন
  • সিরাজগঞ্জে ২ জনের লাশ উদ্ধার
  • তেল সাশ্রয়ী মোটরসাইকেল বানালেন যুবক
  • ২৫ ভরি স্বর্ণ হাতিয়ে নিতে স্ত্রীকে খুন
  • চলনবিলে অভিযান চালিয়ে অবৈধ বানার বেড়া অপসারণ
  • ফতুল্লায় ২১ যাত্রীসহ ট্রলারডুবি
  • ‘টার্গেট কিলিংয়ের’ শিকার রোহিঙ্গা নেতারা
  • উপরে