সিংড়া কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

প্রকাশিত: জুলাই ২০, ২০২২; সময়: ৭:৪৫ pm |
সিংড়া কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, নাটোর : নাটোরের সিংড়া গোল-ই আফরোজ সরকারি অনার্স কলেজ ছাত্রাবাসে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। বুধবার বেলা ৩টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। এসময় সাধারন শিক্ষার্থীদের মাঝে আতংকের সৃষ্টি হয়। ঘটনার পর কলেজ ছাত্রাবাস অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেন কর্তৃপক্ষ।

সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা যায়, কলেজ ছাত্রাবাসে প্রায় ৬০ জন ছাত্র থাকে। তাদের অধিকাংশ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সদ্য সাবেক ভিপি সজিব ইসলাম জুয়েলের অনুসারী। তাদের নতুন করে ছাত্রাবাসে ভর্তি হতে হবে বলে কলেজ কর্তৃপক্ষ জানান। বুধবার সকালে কলেজ ছাত্র সংসদের নব-নির্বাচিত ভিপি মাসুম আলী’র অনুসারীরা যাদের ভর্তির কাগজ নেই তাদেরকে ছাত্রাবাস থেকে বের হয়ে যেতে বলেন। এসময় মাসুম সমর্থক শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে জুয়েল সমর্থক শিক্ষার্থীদের বিছানাপত্র সহ বই খাতা বাহিরে ছুড়ে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে।

উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সজিব ইসলাম জুয়েলের অভিযোগ করে বলেন, বেলা ৩টার দিকে ছাত্রাবাসে প্রবেশ করে ছাত্রাবাসে থাকা আমার সমর্থক ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের বিছানাপত্র, বই-খাতা, আসবাবপত্র বাহিরে বের করে ফেলে দেয় ভিপি মাসুমের সমর্থকরা। এসময় প্রতিবাদ করলে আমার সমর্থক উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল হাকিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মুরশিদুল ইসলাম, রনিসহ কয়েকজনের উপর হামলা করা হয়। এসময় তাঁদের টাকা, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও সার্টিফিকেট হারিয়ে যায় বলে অভিযোগ করেন ছাত্রলীগ নেতা আব্দুল হাকিম। দুই গ্রুপের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি শান্ত করে।

উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সজিব ইসলাম জুয়েল বলেন, ছাত্রাবাসের সবাই আমার সমর্থক এজন্য তাদের বের করে দেয়া হচ্ছে। কারো কোনো টাকা বাকি নেই, সবাই ভর্তি হওয়া ছাত্র।

গোল-ই আফরোজ সরকারি কলেজ ছাত্র সংসদের ভিপি মাসুম আলী বলেন, অনেকে ভর্তি না হয়ে অবৈধভাবে ছাত্রাবাসে থাকে। তাদেরকে বের করার জন্য কলেজ কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তারা নিজেদের বিছানা ও আসবাবপত্র নিজেরাই এলোমেলো করেছে, আমরা স্যারের সাথে মিটিংয়ে ছিলাম।

সিংড়া থানার উপ-পরিদর্শক আব্দুর রহিম বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। বর্তমানে পরিবেশ স্বাভাবিক রয়েছে।

গোল-ই আফরোজ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) মো. জহির উদ্দিন বলেন, ছাত্রাবাস অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। সকল ছাত্রদের সন্ধ্যা ৬ টার মধ্যে ছাত্রাবাস ত্যাগের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তদন্ত কমিটি গঠন করে পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • রাজশাহীতে অনুমোদন বাতিলের পরও সেই কলেজে ভর্তি নিচ্ছে শিক্ষার্থী
  • মহাদেবপুরে জাল সনদে ১১ বছর শিক্ষকতা করার অভিযোগ
  • ববিতে ‘বঙ্গবন্ধুর আইন ও মানবাধিকার’ শীর্ষক ওয়েবিনার
  • রুয়েটে ভর্তি পরীক্ষা চলমান, কেন্দ্রের বাহিরে অভিভাবকদের ঢল
  • শেখ কামালের জন্মদিন উপলক্ষে ইবি শাখা ছাত্রলীগের দোয়া মাহফিল
  • সহপাঠীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে ঢাবি ছাত্র বহিষ্কার
  • প্রক্সিকাণ্ডের ‘মূল হোতা’ রাবি ছাত্রলীগ নেতা তন্ময় বহিষ্কার
  • ইবি রিপোর্টার্স ইউনিটির সাথে নবগঠিত শাখা ছাত্রলীগ কমিটির সৌজন্য সাক্ষাৎ
  • শিবগঞ্জে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিদর্শনে ডিসি
  • বঙ্গবন্ধু ম্যুরালে নবগঠিত ইবি শাখা ছাত্রলীগের শ্রদ্ধাঞ্জলি
  • রাবিতে পারফমেন্স আর্ট পরিবেশন
  • রাবি এ ইউনিটে প্রথম হওয়া তানভির আহমেদের ফলাফল বাতিল
  • রাবিতে প্রক্সি দিয়ে প্রথম স্থান অতঃপর
  • রাবির ভর্তি যুদ্ধেও হেরে গেলেন বেলায়েত
  • মাড়োয়ারী স্কুল এন্ড কলেজে বহিরাগতদের আনাগোনা
  • উপরে