নিয়ামতপুরে সাঁওতাল বিদ্রোহ দিবস পালিত

প্রকাশিত: জুন ৩০, ২০২২; সময়: ২:০৪ pm |
নিয়ামতপুরে সাঁওতাল বিদ্রোহ দিবস পালিত

নিজস্ব প্রতিবেদক, নিয়ামতপুর : সাঁওতাল বিদ্রোহ দিবসের ১৬৭তম বার্ষিকী উপলক্ষ্যে নওগাঁর নিয়ামতপুরে বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। র‌্যালিটি উপজেলা গেট থেকে উপজেলা সদরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে বিআরডিবি ভবনের সামনে এসে শেষ হয়।

র‌্যালি শেষে জাতীয় আদিবাসী পরিষদ নিয়ামতপুর উপজেলা শাখার উদ্যোগে ৩০ জুন বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক এর হল রুমে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

সাঁওতাল নেতা জাতীয় আদিবাসী পরিষদ নিয়ামতপুর উপজেলা শাখার সাবেক সভাপতি সুফল হেমরমের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফরিদ আহমেদ।

জাতীয় আদিবাসী পরিষদ নিয়ামতপুর উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক অজিত মুন্ডার সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আইয়ুব হোসাইন মন্ডল, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাদিরা বেগম, বিআরডিবির চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদ নিয়ামতপুর উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক বিজয় সরদার, জাতীয় আদিবাসী পরিষদ রসুলপুর ইউনিয়ন শাখার সভাপতি মধু উরাও, যুব পরিষদ নিয়ামতপুর উপজেলা শাখার আহবায়ক নিপেন পাহান, নিয়ামতপুর উপজেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক জনি আহমেদ, সদস্য সিরাজুল ইসলাম, আইনুল হক, ইমরান ইসলাম প্রমূখ।

প্রধান অতিথি বলেন, ব্রিটিশ সাম্রাজ্যবাদবিরোধী সংগ্রামের ইতিহাসে ১৮৫৫ সালের সাঁওতাল বিদ্রোহ এক গৌরবোজ্জ্বল অধ্যায়। প্রথম সশস্ত্র গণসংগ্রাম। সাঁওতাল বিদ্রোহীদের সেদিনের দেশপ্রেমিক সংগ্রাম, আদর্শ ও অভূতপূর্ব আত্মত্যাগ পরবর্তীকালে ভারতবর্ষের জাতীয় স্বাধীনতা আন্দোলনকে অনুপ্রাণিত করেছিল। জুগিয়েছিল সাহস ও উদ্দীপনা। মুক্তিকামী মানুষের কাছে আজও তা অনুপ্রেরণার উৎস হয়ে আছে।

তিনি আরো বলেন, সাঁওতাল বিদ্রোহের নায়ক দুই ভাই সিধু মুরমু ও কানু মুরমু স্মরণে ও শ্রদ্ধায় সাঁওতালদের অনেকেই দিনটিকে সিধু-কানু দিবস বলে থাকেন। ব্রিটিশ সাম্রাজ্যবাদ ও তাদের এদেশীয় দালাল সামন্ত জমিদার, সুদখোর, তাদের লাঠিয়াল বাহিনী, দারোগা-পুলিশের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে সাঁওতাল নেতা সিধু, কানু, চাঁদ ও ভৈরব এই চার ভাইয়ের নেতৃত্বে রুখে দাঁড়ান সাঁওতালরা। সঙ্গে ছিলেন তাঁদের দুই বোন ফুলোমনি মুরমু ও ঝালোমনি মুরমু।

প্রধান অতিথি আরো বলেন, ভারতের ভাগলপুর, মুর্শিদাবাদ ও বীরভূম জেলার প্রায় দেড় হাজার বর্গমাইল এলাকা দামিন-ই-কোহ্ বা ‘পাহাড়ের ওড়না’ এলাকা হিসেবে চিহ্নিত। ভাগলপুরের ভগনা ডিহি গ্রামের সিধু, কানু, চাঁদ ও ভৈরব-এই চার ভাইয়ের নেতৃত্বে দামিন-ই-কোহ্ অঞ্চলে সংঘটিত হয় সাঁওতাল বিদ্রোহ। ১৮৫৫ সালের ৩০ জুন ভগনা ডিহি গ্রামে ৪০০ গ্রামের প্রতিনিধি ১০ হাজার সাঁওতাল কৃষকের বিরাট জমায়েত হয়। এই জমায়েতে সিধু-কানু ভাষণ দেন।

এ সভায় সিদ্ধান্ত হয়, অত্যাচারী শোষকদের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য সবাইকে এক হয়ে লড়তে হবে। এখন থেকে কেউ জমির কোনো খাজনা দেবেন না এবং প্রত্যেকেরই যত খুশি জমি চাষ করার স্বাধীনতা থাকবে। আর সাঁওতালদের সব ঋণ এখন বাতিল হবে। তাঁরা মুলুক দখল করে নিজেদের সরকার কায়েম করবেন।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • সুজানগরে সাত বছরের শিশুকে ধর্ষণ, আটক-১
  • ট্রেনে কাটা পড়ে বৃদ্ধার মৃত্যু
  • কচুয়ায় ৯দিনেও উদঘাটন হয়নি প্রবাসী রিপনের মৃত্যুর রহস্য
  • কচুয়ায় সাংবাদিক ইকরাম চৌধুরীর দ্বিতীয় মৃত্যবার্ষিকী পালিত
  • প্রতিপক্ষ কর্তৃক পথরোধ করে মারপিট ও টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ
  • শিবগঞ্জের ছত্রাজিতপুরের একটি ওয়ার্ডের ভোট বাতিল, পুনরায় গ্রহণের নির্দেশ
  • শিবগঞ্জে আইনশৃংখলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত
  • প্যান্টের পকেটে ইয়াবা, পুলিশ দেখে দৌড়
  • পত্নীতলায় বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকী পালিত
  • মান্দায় বিস্ফোরক মামলার আসামিকে আ.লীগ কর্মী বানানোর অপচেষ্টা
  • ধামইরহাটে বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেসার জন্মদিন উপলক্ষে সেলাইমেশিন বিতরণ
  • ফরিদপুরে বঙ্গমাতার জন্মবার্ষিকীতে সেলাই মেশিন ও আর্থিক সহায়তা প্রদান
  • শিবগঞ্জে কৃষকদলের সমাবেশ থেকে ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনায় আটক ১২
  • বাগাতিপাড়ার ইউএনও কে সাংবাদিকদের ফুলেল শুভেচ্ছা
  • ইয়াবাসহ ইউপি মেম্বারের স্ত্রী ও তার সহযোগী আটক
  • উপরে